৭ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ

0
533

স্টাফ রিপোর্টার : ৭ কোম্পানি ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে সমাপ্ত তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি’২০-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। রোববার (২৮ জুন) অনুষ্ঠিত কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের সভায় আলোচিত প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে তা প্রকাশ করা হয়। ডিএসই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১১ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৪৪ পয়সা।অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ৮৯ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ১ টাকা ০৭ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল  ১ টাকা ১১ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ১ টাকা ৯১ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ১৪ টাকা ১১ পয়সা।

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৪৯ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৭৩ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ২ টাকা ১১ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ২ টাকা ৮৭ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৫ টাকা ১৯ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ৩ টাকা ২৫ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৬৯ টাকা ৭৬ পয়সা।

সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৪২ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৬৫ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ১৩ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ১ টাকা ৩৪ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৮ টাকা ২২ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ৫ টাকা ৯৪ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ২৫ টাকা ৫১ পয়সা।

জেমিনি সি ফুডস লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৫ টাকা ৩৪ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৩২ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৪ টাকা ৭৪ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে  লোকসান ছিল ৬২ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল মাইনাস ২ টাকা ০৫ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ৮ টাকা ৪৪ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৫ টাকা ৩০ পয়সা।

প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১১ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৩৪ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৭১ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ১ টাকা ০২ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৩১ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ০.০১ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৫ টাকা ৩০ পয়সা।

সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ২৪ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৩৯ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ১৯ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ১ টাকা ৩৭ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল ২ টাকা ৫৫ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ১ টাকা ৭৪ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ২১ টাকা ৬৩ পয়সা।

বিডি থাই অ্যালুমিনিয়াম লিমিটেড : কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ০৬ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ১৬ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১৬ পয়সা ও গত বছরের একই সময়ে তা ছিল ৪৯ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নগদ অর্থের প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) ছিল মাইনাস ০৯ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল মাইনাস ০৫ পয়সা। গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ২৭ টাকা ৫৪ পয়সা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here