৪০টি দেশে জুতা রফতানী করে এপেক্স ট্যানারি

0
442

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশের জুতা তৈরিকারক প্রতিষ্ঠান এপেক্স ট্যানারির সাফল্য নিয়ে বিশদ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস। প্রতিবেদনে এপেক্সের প্রশংসা করে বলা হয়, এটি এখন সারা বিশ্বের জুতা কারিগর হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মাত্র দু’দশক আগে যাত্রা শুরু করে এপেক্স এখন দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় জুতা প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। প্রতিবছর এপেক্সের তৈরি ৪৫ লাখ জোড়া জুতা পৌঁছে যায় ৪০টি দেশে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাকি ও জেসি পেনি, জাপানের এবিসি মার্ট এবং জার্মানির ডেইচম্যানসহ বিশ্বের বড় খুচরা বিক্রেতারা এপেক্সের গ্রাহক।
একই সঙ্গে দেশীয় বাজারেও প্রতিবছর তিন লাখ জোড়া জুতা প্রস্তুত করে এপেক্স। সাড়ে পাঁচশ খুচরা দোকানের মাধ্যমে এগুলো চলে যায় মানুষের পায়ে।

ফোর্বসের সংবাদ কর্মী নাজনীন কার্মালি গাজীপুরে এপেক্সের কারখানা ঘুরে দেখেন। তিনি জানান, কারখানাটিতে কর্মীদের জন্য সবধরণের সুযোগ সুবিধা রয়েছে। শ্রমিকদের গড় মাসিক বেতন ৮ হাজার টাকা। সব কর্মী লভ্যাংশ পান। রয়েছে স্বাস্থ্য ও জীবনবিমার সুবিধাও।

এপেক্সের প্রতিষ্ঠাতা মনজুর এলাহি বর্তমানে এপেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান। ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দ্বায়িত্বে রয়েছেন তাঁর ছেলে নাসিম মনজুর।

মনজুর এলাহি ফোর্বসকে বলেন, তার জন্ম ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। ১৯৬২ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার উদ্যেশ্যে তিনি বাংলাদেশে আসেন। পড়াশোনা শেষে যোগ দেন ব্রিটিশ আমেরিকান কোম্পানিতে। তবে স্বপ্ন ছিল ব্যবসায় নামার।

১৯৭২ সালে চাকরি ছেড়ে একটি ফরাসি কোম্পানি প্রতিনিধির কাজ নেন মনজুর এলাহি। ১৯৭৫ সালে ঢাকার হাজারিবাগের একটি কোম্পানি কিনে নেন প্রায় ১২ লাখ টাকায়। নাম দেন ‘এপেক্স ট্যানারি’। ধীরে ধীরে নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে গড়ে তোলেন তাঁর স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান। যা আজ স্বপ্ন গড়ে দেয় বিশ্বের লাখো মানুষের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here