সাউথইস্ট, এক্সিম ও প্রিমিয়ার ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণা

0
2173

স্টাফ রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে তালিকাভুকাভুক্ত ৩টি ব্যাংক রোববার লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। নিচে বিস্তারিত প্রকাশ করা হলো-

সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড : পরিচালনা পর্ষদ সমাপ্ত ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। রোববার (৯ মে) ব্যাংকটির সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এ লভ্যাংশ অনুমোদন করে পর্ষদ।

সমাপ্ত হিসাব বছরে ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৮১ পয়সা, আর এককভাবে হয়েছে ১ টাকা ৭৬ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ শেষে ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৪ টকা ৯৮ পয়সা।

ঘোষিত লভ্যাংশ শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ৩০ জুন সকাল ১১ টায় ডিজিটাল প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। লভ্যাংশ বিতরণে জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ জুন।

এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড : পরিচালনা পর্ষদ সমাপ্ত ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এরমধ্যে ৭ দশমিক ৫০ শতাংশ নগদ ও ২ দশমকি ৫০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ। রোববার (৯ মে) অনুষ্ঠিত ব্যাংকটির সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এ লভ্যাংশ অনুমোদন করে পর্ষদ।

সমাপ্ত হিসাব বছরে ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৯৯ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরে হয়েছিল ১ টাকা ৬৯ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ শেষে ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২১ টকা ৬৬ পয়সা।

ঘোষিত লভ্যাংশ শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ২৯ জুন সকাল ১১ টায় ডিজিটাল প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। লভ্যাংশ বিতরণে জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৬ জুন।

প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড : চলতি ২০২১ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের বিনিয়োগের বিপরীতে নিট মুনাফা হয়েছে প্রায় ৮৭ কোটি টাকা। যেখানে আগের বছরের একই সময়ে বিনিয়োগের বিপরীতে নিট মুনাফা ছিল ১২৩ কোটি টাকা। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে ব্যাংকটির বিনিয়োগের বিপরীতে নিট মুনাফা কমেছে ২৯ শতাংশ।

গতকাল বিকালে সভায় চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদন করেছে ব্যাংকটির পর্ষদ। প্রতিবেদন অনুসারে, আলোচ্য সময়ে প্রিমিয়ার ব্যাংকের মোট পরিচালন আয় হয়েছে ২৪৯ কোটি টাকা। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে পরিচালন আয় ছিল প্রায় ২৫৫ কোটি টাকা।

চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে ব্যাংকটির পরিচালন খাতে ব্যয় হয়েছে ১৪৫ কোটি টাকা। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে এ খাতে ব্যয় ছিল প্রায় ১৩৯ কোটি টাকা। এ বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ সময়ে ব্যাংকটি সঞ্চিতি বাবদ ৩ কোটি টাকা সংরক্ষণ করেছে। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে ২০ কোটি টাকার সঞ্চিতি সংরক্ষণ করেছিল।

কর পরিশোধের পর চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে ব্যাংকটির নিট মুনাফা হয়েছে প্রায় ৫৮ কোটি টাকা। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে নিট মুনাফা ছিল ৫৩ কোটি টাকা। আলোচ্য সময়ে প্রিমিয়ার ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা। যেখানে এর আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ৫৫ পয়সা। এ বছরের ৩১ মার্চ শেষে ব্যাংকটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ৬২ পয়সায়।

সর্বশেষ ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের মোট ২০ শতাংশ লভ্যাংশ প্রদানের সুপারিশ করেছে প্রিমিয়ার ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ। এর মধ্যে সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ ও বাকি সাড়ে ৭ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ১৩ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩ টাকা ৪৪ পয়সা (পুনর্মূল্যায়িত)। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকটির সমন্বিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ২ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ১৯ টাকা ৩৩ পয়সা (পুনর্মূল্যায়িত)।

এর আগের ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের মোট ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল প্রিমিয়ার ব্যাংক। এর মধ্যে ৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ। ২০১৮ হিসাব বছরে ব্যাংকটি ১৫ দশমিক ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছিল। ২০১৭ হিসাব বছরে ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পেয়েছিলেন ব্যাংকটির শেয়ারহোল্ডাররা।

২০০৭ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রিমিয়ার ব্যাংকের অনুমোদিত মূলধন ১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ১ হাজার ৪৩ কোটি ৭ লাখ টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ৯৯৬ কোটি ৯২ লাখ টাকা। ব্যাংকের মোট শেয়ারের ৩৫ দশমিক ৩৩ শতাংশ রয়েছে উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৯ দশমিক ৭৫, বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছে ১ দশমিক ৫৯ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে বাকি ৪৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here