রিজেন্ট টেক্সটাইলের নতুন বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু

0
299

স্টাফ রিপোর্টার : প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) তহবিল দিয়ে নিজেদের টেক্সটাইল প্রকল্পে কারখানার সংস্কার, সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়ন (বিএমআরই) সম্পন্ন করেছে রিজেন্ট টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড। সেখানে একটি নতুন ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে, যেখানে এরই মধ্যে যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে এবং পরীক্ষামূলক উৎপাদন কার্যক্রম সফলভাবে পরিচালনা করা হয়েছে।

২২ মার্চ নতুন ইউনিটটিতে বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করবে কোম্পানিটি। এতে প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদন সক্ষমতা আগের তুলনায় বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।

সর্বশেষ ৩০ জুন সমাপ্ত ২০১৯ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে রিজেন্ট টেক্সটাইল। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯৭ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৭ পয়সা (পুনর্মূল্যায়িত)। ৩০ জুন শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ৩০ টাকা ২১ পয়সা ও আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৩০ টাকা ৭০ পয়সা।

এদিকে সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জুলাই-ডিসেম্বর) রিজেন্ট টেক্সটাইলের কর-পরবর্তী নিট মুনাফা হয়েছে ২ কোটি ৪৩ লাখ টাকা ও আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা। এ হিসাবে প্রথমার্ধে প্রতিষ্ঠানটির নিট মুনাফা কমেছে ৫ কোটি ২৭ লাখ টাকা বা ৬৮ দশমিক ৪৪ শতাংশ। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২০ পয়সা ও আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৬৪ পয়সা।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর) নিট মুনাফা হয়েছে ১ কোটি ১ লাখ টাকা ও আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩ কোটি ৬২ লাখ টাকা। ৩১ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠানটির এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৩০ টাকা ৪১ পয়সা ও আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩০ টাকা ২০ পয়সা।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বৃহস্পতিবার রিজেন্ট টেক্সটাইল শেয়ারের সর্বশেষ ও সমাপনী দর ছিল ৭ টাকা ৯০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ৫ টাকা ৫০ পয়সা ও ১৮ টাকা ৪০ পয়সা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here