বোনাস শেয়ারের গরমে এখন তামা স্টাইলক্রাফট

0
698

সিনিয়র রিপোর্টার : বোনাস লভ্যাংশ দিয়ে পরিশোধিত মূলধন বৃদ্ধি করে স্টাইলক্রাফট লিমিটেড। ব্যাপক বোনাস শেয়ার দিয়ে পরিশোধিত মূলধন বাড়িয়ে লোকসানে পড়েছে বস্ত্র খাতের এই কোম্পানিটি।

পাঁচ বছর আগে যে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় ছিল ৯৫ টাকা, সেই কোম্পানির শেয়ারসংখ্যা প্রায় ২৩ গুণ বাড়ার পর এখন তা লোকসানে।

ব্যাপক লাভজনক কোম্পানিটি লোকসানে পড়ার পাশাপাশি পুঁজিবাজারে যারা এ কোম্পানিতে বিনিয়োগ করেছে, তারাও এখন হতাশ।

কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণার চিত্রটি মঙ্গলবার ডিএসই থেকে নেয়া

১৯৮৩ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি প্রতিবছর ব্যাপক মুনাফা করে আলোচিত ছিল। মাত্র ৬০ লাখ টাকা পরিশোধিত মূলধনের কোম্পানিটি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে শেয়ারপ্রতি ৯৫ টাকা মুনাফা করে চমক দেখায়।

এরপর থেকে টানা তিন বছর ব্যাপক হারে বোনাস শেয়ার দিয়ে পরিশোধিত মূলধন ১৩ কোটি ৮৮ লাখ ৪৭ হাজার ৫০০ টাকা করে। শেয়ারসংখ্যা ৬ লাখ থেকে বেড়ে দাঁড়ায় ১ কোটি ৩৮ লাখ ৮০ হাজারের বেশি।

২০১৭ সালে কোম্পানিটি প্রথমবারের মতো ৮০ শতাংশ অর্থাৎ প্রতি ১০টি শেয়ারে আটটি শেয়ার লভ্যাংশ হিসেবে দেয়। তখন শেয়ারের দাম বেড়ে ২ হাজার ৮০০ টাকার মতো হয়ে যায়। ধীরে ধরে সোনার দামে বিক্রি হতে থাকে।

পরের বছর কোম্পানিটি আরও চমক দেখায়। ওই বছর প্রতি ১০০ শেয়ারে বোনাস শেয়ার হিসেবে দেয়া হয় ৪১০টি শেয়ার। আরও ব্যাপক বোনাস শেয়ার দেয়া হবে, এই খবরে দাম ছাড়ায় ৪ হাজার ৯০০ টাকা।

এই দরে যারা শেয়ারটি কিনেছেন, তারা পরের বছর আরও দেড়’শ শতাংশ অর্থাৎ দুটি শেয়ারের বিপরীতে আরও তিনটি শেয়ার বোনাস হিসেবে পাওয়ার পরও বিপুল পরিমাণে লোকসানে আছেন।

কোম্পানির দুই বছরের শেয়ার দরের চিত্রটি মঙ্গলবার ডিএসই থেকে নেয়া

৪ হাজার ৯০০ টাকায় একটি শেয়ার যারা পেয়েছেন, ২০১৭ সালে ৪১০ শতাংশ বোনাস যোগ হওয়ার পর শেয়ারের দাম সমন্বয় হয় ৯৬০ টাকা। পরের বছর ১৫০ শতাংশ বোনাস যোগ হওয়ার পর দাম সমন্বয় হয় ৩৮৪ টাকা ৩০ পয়সা। এরপর কোম্পানিটি আর বোনাস শেয়ার ইস্যু করেনি। দর পড়ে এখন তামার দরে বিক্রি হচ্ছে।

পরিশোধিত মূলধন বাড়িয়ে কোম্পানি সম্প্রসারণ হবে, এই আশায় উচ্চমূল্যে শেয়ার কিনে বিনিয়োগকারীদের পকেট ফাঁকা হয়েছে। ঈর্ষণীয় মুনাফা থেকে ক্রমাগত ডুবতে থাকার কারণ জানতে কোম্পানি সচিব এডমান্ড গোডার নম্বরে যোগাযোগ করেই কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি। কমেছে উদ্যোক্তাদের শেয়ার ধারণের পরিমাণও।

মঙ্গলবার সকালে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লেনদেন শুরু হয় ১৯১ টাকায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here