বিদ্যুতের দাম ৫ শতাংশ বৃদ্ধির আভাস দিলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

0
304

স্টাফ রিপোর্টার : বিদ্যুতের দাম ৫ শতাংশ বৃদ্ধির আভাস দিলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। বুধবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, কিছু দিনের মধ্যে প্রতি ইউনিট (কিলোওয়াট-ঘণ্টা) বিদ্যুতের দাম ৩০ থেকে ৩৫ পয়সা বাড়তে পারে। তবে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিপি) সরাসরি জ্বালানি তেল আমদানির অনুমতি পেলে দাম নাও বাড়তে পারে।

নসরুল হামিদ বলেন, বিশ্ববাজারে দাম কম হলেও পিডিবি সরকার নির্ধারিত দামে বিপিসির কাছ থেকে জ্বালানি তেল কেনে। এতে খরচ বেশি হয় এবং উৎপাদন ব্যয় বেড়ে যায়। তাই আয়-ব্যয় সমন্বয় করতে বিদ্যুতের দাম বাড়াতে হয়। কিন্তু পিডিবি সরাসরি তেল আমদানির সুযোগ পেলে জ্বালানির ব্যয় কম হবে। এতে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রয়োজন পড়বে না।

কবে নাগাদ এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে— এমন প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী জানান, এটা নির্ভর করছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) ওপর। সংস্থাটি এরই মধ্যে গণশুনানির তারিখ নির্ধারণ করেছে। এই শুনানির ভিত্তিতে দাম সমন্বয়ের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বিদ্যুৎ কোম্পানিগুলো এরই মধ্যে পাইকারিতে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম প্রায় ১৫ শতাংশ এবং গ্রাহক পর্যায়ে ৬ থেকে সাড়ে ১৪ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। বিইআরসি আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে গণশুনানির তারিখ নির্ধারণ করেছে।

নসরুল হামিদ বলেন, ২০১৮ সালের ডিসেম্বর নাগাদ সারাদেশ বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, এবারে ঈদে বিদ্যুৎ পরিস্থিতি ভালো ছিল। তবে মেঘনায় যে টাওয়ার (সঞ্চালন গ্রিডের) ভেঙে পড়েছে সেটা এখনও পুরোপুরি ঠিক হয়নি। এ কারণে কয়েকটি জেলায় ঈদের সময় বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটেছে। তবে শিগগির এটি ঠিক হয়ে যাবে। এ ছাড়া সরকার আগামী এক বছরের মধ্যে তিন হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে কাজ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here