বিএসসিসিএলের পুনর্মূল্যায়নে সম্পদমূল্য বেড়েছে

0
68

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) সম্পদের পুনর্মূল্যায়ন করে কোম্পানিটির সম্পদের মূল্য বেড়েছে। অনুষ্ঠিত সাবমেরিন কেবল কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুমোদন করা হয়।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, বুক ভ্যালু অনুসারে কোম্পানিটির সম্পদের মূল্য ৬৪৮ কোটি ৪৪ লাখ ৭ হাজার ৭৩৯ টাকা ছিল। পুনর্মূল্যায়নের পর এই সম্পদের মূল্য দাঁড়িয়েছে ৭২১ কোটি ৩ লাখ ৫৪ হাজার ২৬১ টাকা। পুনর্মূল্যায়নজনিত উদ্বৃত্ত হচ্ছে ৭২ কোটি ৫৯ লাখ ৪৬ হাজার ৫২২ টাকা।

বুক ভ্যালুতে কোম্পানিটির জমির মূল্য ৪৬ কোটি ৯১ লাখ ৭৪ হাজার ৩৮ টাকা। পুনর্মূল্যায়নে এর মূল্য দাঁড়িয়েছে ১১০ কোটি ৬ লাখ টাকা। মূল প্লান্ট ও মেশিনারিজের বুক ভ্যালু ৫৬৩ কোটি ৬৬ লাখ ৭০ হাজার ৩৯২ টাকা।

পুনর্মূল্যায়নে এর মূল্য হয়েছে ৫৬৭ কোটি ২ লাখ ৫৭ হাজার ২০৮ টাকা। এভাবে বিল্ডিং ও অন্যান্য কাঠামোর মূল্য ৩৩ কোটি ৫২ লাখ ১৮ হাজার ৮৬৫ টাকা থেকে বেড়ে ৪০ কোটি ৭৯ লাখ ১৮ হাজার ৯৯ টাকা হয়েছে। অফিস ইকুইপমেন্ট, আসবাবপত্র ও যানবাহনের মূল্য ৪ কোটি ৩৩ লাখ ৪৪ হাজার ৪৪৪ টাকা থেকে কমে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৭৮ হাজার ৯৫৪ টাকা হয়েছে।

সমাপ্ত ২০২০-২১ হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জুলাই-ডিসেম্বর) বিএসসিসিএলের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ টাকা ৩৭ পয়সা এবং আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ২ টাকা ২৬ পয়সা। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪৫ টাকা ৩০ পয়সা।

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে বিএসসিসিএল। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৫ টাকা ৮০ পয়সা এবং আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৩ টাকা ৫৫ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানিটির এনএভিপিএস দাঁড়ায় ৪০ টাকা ৯৩ পয়সা এবং আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৩৮ টাকা ৭৪ পয়সা।

২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ১৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল বিএসসিসিএল। ২০১৮ হিসাব বছরে ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল তারা। ২০১৭ হিসাব বছরের জন্য ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here