বিএসআরএম স্টিলের মুনাফায় ধস

0
522

সিনিয়র রিপোর্টার : বিএসআরএম স্টিলের বিক্রয় ২৯ শতাংশ কমার পরেও মুনাফা আগের বছরের ধারবাহিকতায় ছিল। কিন্তু বিভিন্ন ব্যাংকের ঋণের সুদ পরিশোধ ব্যয় বৃদ্ধিতে কোম্পানিটির মুনাফা তলানিতে নেমে এসেছে।

কোম্পানির চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধের (জুলাই-ডিসেম্বর ২০১৯) অনিরীক্ষিত আর্থিক হিসাব থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

আর্থিক হিসাব অনুযায়ী, বিএসআরএম স্টিলের আগের বছরের একইসময়ের তুলনায় চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে সুদজনিত ব্যয় বেড়েছে ৪৯ কোটি ১১ লাখ টাকা। এর উপরে ভিত্তি করে নিট মুনাফা কমেছে ৬২ কোটি ১০ লাখ টাকা।

অ্যালায়েন্স ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস ও সাউথ এশিয়া ক্যাপিটালের মাধ্যমে ২০০৯ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া বিএসআরএম স্টিল শেয়ারবাজার থেকে অভিহিত মূল্যে শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে মোট ২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। যে কোম্পানিটির শেয়ার দর মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) লেনদেন শেষে দাড়িঁয়েছে ৩৯.২০ টাকায়।

চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে কোম্পানিটির ২ হাজার ৩১ কোটি ৪ লাখ টাকার পণ্য বিক্রয় হয়েছে। যার পরিমাণ আগের বছরের একই সময়ে হয়েছিল ২ হাজার ৮৭০ কোটি ৯০ লাখ টাকা। এ হিসাবে বিক্রয় কমেছে ৮৩৯ কোটি ৮৬ লাখ টাকার বা ২৯ শতাংশ। কোম্পানিটির এই বিক্রয় ধসের পরেও গ্রোস প্রফিট কমেছে মাত্র ৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। কিন্তু সুদজনিত ব্যয় বৃদ্ধির কারণে মুনাফায় ধস নেমেছে।

আগের অর্থবছরের প্রথমার্ধে বিক্রয়ের জন্য উৎপাদন ব্যয় হয়েছিল ২ হাজার ৬৩৯ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। যা ছিল বিক্রয়ের ৯২ শতাংশ। যাতে গ্রোস প্রফিট (মোট মুনাফা) হয়েছিল ২৩০ কোটি ৯২ লাখ টাকা। আর এ বছরের প্রথমার্ধে বিক্রয়ের বিপরীতে ৮৯ শতাংশ হারে ১ হাজার ৮০৪ কোটি ৬৮ লাখ টাকা উৎপাদন ব্যয় হয়েছে। যাতে গ্রোস প্রফিট হয়েছে ২২৬ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। এ হিসাবে গ্রোস প্রফিট কমেছে ৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা বা ২ শতাংশ।

এদিকে কোম্পানিটির বিক্রয়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিচালন ব্যয় কমেছে। কোম্পানিটির আগের বছরের প্রথমার্ধের ৭৩ কোটি ৪ লাখ টাকার পরিচালন ব্যয় এ বছরে কমে হয়েছে ৬৫ কোটি ১৯ লাখ টাকা। আর ৯৯ কোটি ৯৩ লাখ টাকার সুদজনিত ব্যয় এ বছর বেড়ে হয়েছে ১৪৯ কোটি ৪ লাখ টাকা।

বিএসআরএম স্টিলের ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর ঋণের পরিমাণ দাড়িঁয়েছে ৪ হাজার ১৪ কোটি ২ লাখ টাকায়। এরমধ্যে দীর্ঘমেয়াদি ঋণের পরিমাণ ৮৯৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা ও স্বল্পমেয়াদি ঋণের পরিমাণ ৩ হাজার ১১৯ কোটি ৪৩ লাখ টাকা।

কোম্পানিটির প্রথমার্ধে বিক্রয় থেকে উৎপাদন ব্যয়, পরিচালন ব্যয়, সুদজনিত ব্যয় ও কর সঞ্চিতি বিয়োগ এবং অন্যান্য আয় যোগ শেষে নিট মুনাফা দাড়িঁয়েছে ১৬ কোটি ৮২ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ০.৪৫ টাকা। যা আগের বছরের একই সময়ে নিট মুনাফা হয়েছিল ৭৮ কোটি ৯২ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ২.১০ টাকা। এ হিসাবে মুনাফা কমেছে ৬২ কোটি ১০ লাখ টাকা বা ৭৯ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here