পুঁজিবাজারে যুক্ত হচ্ছে ৯টি কোম্পানি

0
4506

সিনিয়র রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে চায় আরও ৯টি কোম্পানি। এগুলো হচ্ছে- সুব্রা সিস্টেমস, মাস্টার ফিড এগ্রোটেক, অরিজা এগ্রো, মোস্তফা মেটালস, মামুন এগ্রো, কৃষি বিড সিড, এগ্রো অর্গানিকা, আসিয়া সি ফুড ও বিডি পেইন্টস লিমিটেড।

কোম্পানিগুলো প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) বিকল্প কোয়ালিফাইড ইনভেস্টর অফার (কিউআইও) পদ্ধতির মাধ্যমে স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে (এসএমই বোর্ড) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হতে চায়। সব মিলিয়ে ৯টি কোম্পানি কিউআইওর মাধ্যমে ১১০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে।

এ লক্ষ্যে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই ও সিএসই) আবেদন করেছে কোম্পানিগুলো। ৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে তিন-চারটি প্রতিষ্ঠানকে শিগগিরই কমিশন অনুমোদন দেবে বলে বিশেষ একটি সূত্র জানিয়েছে।

এ বিষয়ে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, এসএমই বোর্ডের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে আসতে কোম্পানিগুলোর আগ্রহ বাড়ছে। একটি কোম্পানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ব্যাপক সাড়াও পড়েছে কোম্পানির শেয়ারের আবেদনে।

তিনি বলেন, নতুন করে বেশকিছু কোম্পানি এসএমই বোর্ডের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে আসতে চাচ্ছে। আমরা আবেদনগুলো যাচাই-বাছাই করে অনুমোদন দেব।

বিএসইসি সূত্র জানায়, এসএমই বোর্ডে আবেদন করা এসব কোম্পানি আগে মূল বাজারে আসতে আইপিওতে আবেদন করেছিল। এরপর কমিশনের বুদ্ধিতে এখন নতুন করে কিউআইওর মাধ্যমে স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে আবেদন করেছে।

কোম্পানিগুলোর মধ্যে সুব্রা সিস্টেমস পুঁজিবাজার থেকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের এক কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১২ কোটি টাকা উত্তোলন করতে চায়।

মাস্টার ফিড অ্যাগ্রোটেক ও অরিজা অ্যাগ্রো এক কোটি করে শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা করে মোট ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।

মোস্তফা মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ এক কোটি ১০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১১ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এক কোটি শেয়ার ছেড়ে মামুন এগ্রো ১০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে।

কৃষি বিড ফিড ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ২২ কোটি টাকা, এগ্রো অর্গানিকা এক কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা, আসিয়া ১ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।

এছাড়া বিডি পেইন্টস এক কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। শিগগিরই কোম্পানিটির কিউআইও অনুমোদন মিলবে বলে বিশেষ একটি সূত্র তথ্য নিশ্চিত করে।

২০১৬ সালে স্মলক্যাপ প্লাটফর্ম বা বোর্ড গঠন করা হয়। এরপর এ-সংক্রান্ত ‘কোয়ালিফাইড ইনভেস্টর অফার বাই স্মল ক্যাপিটাল কোম্পানিজ রুলস’ তৈরি করা হয়।

তবে ২০২০ সালের ২৯ এপ্রিল বিধিমালাটি পুনরায় সংশোধন করে চূড়ান্ত করা হয়। এরপর চলতি বছরের ১৫ এপ্রিল ওই বিধিমালার আলোকে স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে নিয়ালকো অ্যালয়সকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেয় কমিশন। স্মলক্যাপ কোম্পানি হিসেবে নিয়ালকো অ্যালয়সের কিউআইওতে বিনিয়োগকারীদের প্রায় ১৮ গুণ আবেদন জমা পড়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here