নতুন মুদ্রানীতি বুধবার ঘোষণা

0
217

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ ব্যাংক বুধবার পুরো এক বছরের মুদ্রানীতি ঘোষণা করতে যাচ্ছে । তবে এটি অন্যান্য বছরের তুলনায় ভিন্ন হবে। অর্থাৎ মহামারির কারণে এবার ভার্চুয়ালি মুদ্রানীতি ঘোষণা হবে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেছে।

২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য অর্থনীতির বিভিন্ন সূচকের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রাগুলো প্রকাশ করা হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে। এবারের মুদ্রানীতিকে বলা হবে প্রবৃদ্ধি ও অর্থনীতি সহায়ক।

বাজারে নগদ অর্থের প্রবাহ কেমন থাকবে, কতটা ঋণ দেয়া হবে উদ্যোক্তাদের এবং ব্যাংক থেকে কী পরিমাণ ঋণ নেবে সরকার তার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় মুদ্রানীতির মাধ্যমে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সম্প্রসারণমূলক মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হবে বলে আশা অর্থনীতিবিদদের। তবে ব্যাংকাররা বলছেন, ঋণের বিপরীতে গ্যারান্টি স্কিম চালু করা অত্যন্ত জরুরি। কারণ সরকার ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের সিংহভাগই ব্যাংকনির্ভর।

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ ও কাক্সিক্ষত প্রবৃদ্ধি অর্জনের মধ্যে ভারসাম্য রাখতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক আগের বছরে দুইবার মুদ্রানীতি প্রণয়ন ও প্রকাশ করত। ছয় মাস অন্তর এই মুদ্রানীতি একটি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে অর্থাৎ জুলাই মাসে এবং অন্যটি জানুয়ারি মাসে। কিন্তু গত বছর থেকে অর্থবছরের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখার জন্য বছরে দুবার নয়, একবার মুদ্রানীতি ঘোষণার নিয়ম চালু করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, অর্থনীতিতে চাহিদা বাড়াতে সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক এরই মধ্যে নানা কর্মসূচি নিয়েছে। বিশেষ করে প্রণোদনার মাধ্যমে ক্ষুদ্র, মাঝারি, বড় সব ধরনের শিল্প, কৃষিসহ সব পর্যায়ে উৎপাদন ঠিক রাখতে ঋণ জোগান বাড়ানোর লক্ষ্যে নির্ধারণ করা হয়েছে। এজন্য সরকারের সুদ ভর্তুকির আওতায় কম সুদে ঋণের জন্য কয়েকটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল গঠন করা হয়েছে।

এসব তহবিল থেকে ঋণ বিতরণের মাধ্যমে উৎপাদন বাড়ানো এবং কর্মসংস্থান ঠিক রাখা অন্যতম লক্ষ্য। এসব লক্ষ্যকে সামনে রেখে সরকার নির্ধারিত ৮ দশমিক ২০ শতাংশের কাছাকাছি জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জন এবং মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৪০ শতাংশে সীমিত রাখার লক্ষ্যকে সামনে রেখে মুদ্রা সরবরাহ বাড়ানোর প্রাক্কলন করা হবে নতুন মুদ্রানীতিতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here