দুবাইয়ে চালু হল ইউসিবি স্টক ব্রোকারেজের ডিজিটাল বুথ

0
236

স্টাফ রিপোর্টার :  বাংলাদেশের বাইরে প্রথম সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ‘ডিজিটাল বুথ’ চালু করেছে ইউসিবি স্টক ব্রোকারেজ লিমিটেড।গত ১২ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) দুবাইতে ডিজিটাল বুথটি উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলি রুবায়াত-উল-ইসলাম।

জানা গেছে, এই বুথট প্রবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি) বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি অন্যান্য বিদেশী বিনিয়োগকারীদেরও সেবা দেবে যারা বাংলাদেশের পূঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে চান। ডিজিটাল বুথ বিনিয়োগকারীদের একাউন্ট খোলা, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশে তহবিল স্থানান্তর, স্টক/বন্ড ব্যবসায়ের জন্য অর্ডার গ্রহণ এবং বাংলাদেশ থেকে তহবিল ফেরতের ব্যবস্থা করার জন্য বিনিয়োগকারীদের এক স্থানে সকল পরিষেবা প্রদান করবে।

এ সময় বিএসইসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলি রুবায়াত-উল-ইসলাম বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অধীনে বর্তমান গতিশীল নেতৃত্বের প্রশংসা করে বলেন, তিনি (প্রধানমন্ত্রী) দেশের জন্য উচ্চতর বৃদ্ধির গতি অর্জনে নিরলস কাজ করে চলেছেন। তিনি বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি এবং উন্নয়নের পরবর্তী ধাপের জন্য পূঁজিবাজারের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন।

এ ছাড়াও তিনি উল্লেখ করেন, কাঙ্ক্ষিত ফলাফল অর্জনের জন্য, প্রবাসী বাংলাদেশীদের পুঁজিবাজারের দিকে আকর্ষিত করতে হবে। এটি কেবল বাংলাদেশকে তার প্রবৃদ্ধির পথে সহায়তা করবে না; পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশীদের জন্য নির্ভরযোগ্য এবং লাভজনক বিনিয়োগের দিগন্ত প্রসারিত করবে।

এ সময় বিএসইসি চেয়ারম্যান ব্যাখ্যা করেন যে ডিজিটাল বুথ খোলার বিষয়টি পুঁজিবাজারের উন্নতির জন্য বর্তমান কমিশন কর্তৃক নেওয়া ধারাবাহিক উদ্যোগের একটি অংশ। তিনি প্রবাসী বাংলাদেশী যাদের কঠোর পরিশ্রম এবং নিষ্ঠা বাংলাদেশকে কাঙ্খিত উন্নয়ন অর্জনে সহায়তা করছে তাদের জন্য বিনিয়োগের সুযোগ তৈরি করতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা কর্তৃক সর্বোচ্চ সহায়তা প্রদানের ব্যাপারেও আগ্রহী প্রকাশ করেছেন। তিনি প্রবসী বাংলাদেশীদের প্রতি বাংলাদেশের উন্নয়নে অপরিসীম অবদানের জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি আরো বলেন, ডিজিটাল বুথটি চালু হওয়ার আগে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) গত ৯-১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ তারিখে দুবাই এ ‘দ্য রাইজ অব বেঙ্গল টাইগারঃ পটেনশিয়ালস অব বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেটস’ শীর্ষক একটি রোডশো আয়োজন করে। যার লক্ষ্য ছিল প্রবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি) বিনিয়োগকারীদের বাইরে এবং বাংলাদেশে বিদেশী বিনিয়োগ ও প্রবাসী বাংলাদেশীদের বিনিয়োগকে আকৃষ্ট করা। তিনি বাংলাদেশের পূঁজিবাজার সম্পর্কিত রোড শো চলাকালীন প্রবাসী বাংলাদেশী এবং বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মধ্যে প্রচুর উৎসাহ লক্ষ্য করেন এবং প্রত্যাশা করেন যে এই ডিজিটাল বুথ পূঁজিবাজারের সম্পূর্ণ সম্ভাবনা বাস্তবায়ন করতে সহায়তা করবে। তিনি এই ডিজিটাল বুথের সর্বোত্তম সাফল্য কামনা করেন।

এছাড়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান জনাব আনিসুজ্জামান চৌধুরী । তিনি মুজিব শতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশের বাইরে একটি বাংলাদেশী ব্রোকারেজ ফার্মের প্রথম ডিজিটাল বুথ উদ্বোধন করার জন্য অপরিসীম আনন্দ প্রকাশ করেন।

তিনি এটিকে বেঙ্গল টাইগারের টুপিতে আরেকটি গর্বিত পালক হিসাবে অভিহিত করেন এবং তার প্রয়াত পিতা ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা জনাব আক্তারুজ্জামান চৌধুরীর স্বপ্ন বাস্তবায়নের আরেকটি পদক্ষেপ হিসাবে বলেন, যিনি ইউসিবিকে একটি ‘প্রগ্রেসিভ গ্লোবাল ব্যাংক’ করার স্বপ্ন দেখেছিলেন।

তিনি অধ্যাপক শিবলি রুবায়াত-উল-ইসলাম এবং কমিশনকে ধন্যবাদ জানান ডিজিটাল বুথের মত সময়োচিত উদ্যোগ গ্রহণের জন্য যা কঠোর পরিশ্রমী প্রবাসী বাংলাদেশীদের জন্য নতুন বিনিয়োগের সম্ভাবনা উন্মুক্ত করবে।

তিনি আরো বলেন, ইউসিবি স্টক ব্রোকারেজ লিমিটেড নিজেকে একটি নির্ভরযোগ্য এবং দক্ষ প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করতে সক্ষম হয়েছে যার মূলে রয়েছে গবেষণা চালিত বিনিয়োগের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করা। পুজিবাজারের জন্য অবদান বাড়াতে ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং ইউসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড গঠন করা হয়েছে এবং একটি কাস্টোডিয়ান লাইসেন্সও নেওয়া হয়েছে। ইউসিবি এবং এর সহযোগী সংস্থাগুলির এখন বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে ৫৫০ কোটি টাকারও বেশি সম্মিলিত বিনিয়োগ রয়েছে। তাছাড়া ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য একটি নতুন মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস সংস্থাও চালু করা হয়েছে।

ইউসিবি স্টক ব্রোকারেজের সিইও মোহাম্মদ রহমত পাশা অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য রাখেন। তিনি ডিজিটাল বুথের সম্ভাবনা ব্যাখ্যা করে এবং ডিজিটাল বুথ খোলার ক্ষেত্রে সকল নিয়ন্ত্রককে তাদের সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলি রুবায়াত-উল-ইসলামের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন যার উদ্যোগ এবং নিরলস প্রচেষ্টা এটি সম্ভব করেছে। তিনি ডিজিটাল বুথের প্রতি ঊৎসাহ প্রদর্শনের জন্য প্রবাসী বাংলাদেশীদের ধন্যবাদ জানান এবং এই ডিজিটাল বুথের মাধ্যমে সেরা সম্ভাব্য পরিষেবা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

কমিশনার খোন্দকার কামালুজ্জামানসহ বিএসইসির বিভিন্ন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের পক্ষে পরিচালক ও এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্য জনাব আসিফুজ্জামান চৌধুরী; পরিচালক ডঃ মোঃ জোনায়েদ শফিক; সিইও, ইউসিবি এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড শেখ মোহাম্মদ রাশেদুল হাসান; সিইও, ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড জনাব তানজিম আলমগীর সহ অন্যান্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে দুবাইয়ের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকজন বিশিষ্ঠ গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ডিজিটাল বুথটি দুবাইয়ের শেখ জায়েদ রোডের কনরাড টাওয়ারের ২১ তলায় অবস্থিত। এটি ক্রিক বল রুম, পার্ক হায়াত, দুবাই এ ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here