তিন আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে বাংলাদেশ ব্যাংকের নোটিশ

0
706

স্টাফ রিপোর্টার : মোবাইল ফোনের এসএমএসে উচ্চ সুদের প্রলোভনে আমানত সংগ্রহ করায় পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৩ আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে শোকজ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। প্রতিষ্ঠান তিনটি হচ্ছে-লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড, প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড ও ফার্ষ্ট ফাইন্যান্স লিমিটেড।

রোববার (২৫ জুলাই) তাদের শোকজ করা হয়। কোম্পানিগুলোকে আলাদা চিঠি দিয়ে সাত কর্মদিবসের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়েছে, কোম্পানিগুলো মোবাইল ফোনে খুদে বার্তা দিয়ে উচ্চ সুদে আমানত সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করছে। অথচ এ কাজ না করার জন্য তিন বছর আগেই বাংলাদেশ ব্যাংক একটি নির্দেশনা দিয়েছিল। ওই নির্দেশনা লঙ্ঘনের দায়ে কেন কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে নোটিশে।

উল্লেখ, মোবাইল ফোনের এসএমএসে আমানত সংগ্রহের ব্যাপক তৎপরতার মুখে ২০১৮ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক এটি নিষিদ্ধ করে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংক লক্ষ করেছে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ঋণ বা লিজ বা বিনিয়োগের সুদ বা মুনাফার হার এবং অন্যান্য সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে ফি বা চার্জ বা কমিশনের পূর্ণ তালিকা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রধান কার্যালয় ও শাখাগুলোর দর্শনীয় স্থানে প্রদর্শন করছে।

এগুলো নিজস্ব ওয়েবসাইটে প্রকাশের পাশাপাশি কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান উচ্চ সুদহারে আমানত সংগ্রহে পেশাজীবীসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের গ্রাহকের কাছে মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠাচ্ছে, যা কাঙ্ক্ষিত নয়। এটা কোনো কোনো ক্ষেত্রে বিব্রতকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।

ওই প্রজ্ঞাপনের পর বছর দুয়েক মোবাইল ফোনে আমানত চাওয়া বন্ধ ছিল। সম্প্রতি আলোচিত তিন প্রতিষ্ঠান ওই নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে আমানত সংগ্রহে তৎপর হয়ে উঠে। এদের মধ্যে দুটি প্রতিষ্ঠান আবার খেলাপি ঋণে জর্জরিত। উচ্চ সুদের এই প্রলোভনে সাধারণ আমানতকারীরা ব্যাপক ঝুঁকির মুখে পড়তে পারেন এমন আশংকায় বাংলাদেশ ব্যাংক নড়েচড়ে বসেছে।

জানা গেছে, প্রতিষ্ঠান তিনটির মধ্যে প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড ফিক্সড ডিপোজিট রেট (এফডিআর) অফারে ‘সঞ্চয় প্লাস’ নামক মাসিক আয় স্কিমে এক লাখ টাকায় প্রতি মাসে এক হাজার ২২ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

অন্যদিকে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স তার ‘কুইক সঞ্চয়’ নামের ডিপোজিট স্কিমে মাত্র ৫৪ মাসে জমার অর্থ তিনগুণ করার সুবিধা দেওয়ার কথা জানাচ্ছে এসএমএসে। একইভাবে ফার্স্ট ফাইন্যান্সও উচ্চ সুদের প্রস্তাব দিয়ে এসএমএস দিচ্ছে।

প্রতিষ্ঠান তিনটিকে শোকজ করার বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান বেশি সুদের অফার দিয়ে গ্রাহকদের এসএমএস দিয়েছে। এটি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনার পরিপন্থী। প্রতিষ্ঠানগুলোকে কারণ দর্শানোর জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। চিঠির উত্তরের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here