ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৩৬৮৭ কোটি টাকা লোপাট

0
395

সিনিয়র রিপোর্টার : ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৩ হাজার ৬৮৭ কোটি টাকা লোপাট করা হয়েছে। কোম্পানির সাবেক পরিচালনা পর্ষদ ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের মানিলন্ডারিং ও অব্যবস্থাপনায় এই টাকা লোপাট হয়েছে বলে তথ্য পেয়েছে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে বুধবার (০১ ডিসেম্বর) এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠিয়েছে আইডিআরএ। একইসঙ্গে আর্থিক ক্ষতির বিষয়ে ৭৪ পৃষ্ঠার রিপোর্টও পাঠানো হয়।

ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে নিযুক্ত অডিট ফার্ম একনবীনের দেয়া প্রভিশনাল ইন্টেরিম রিপোর্ট পর্যালোচনা করে অর্থ লোপাটের তথ্য মেলে। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির স্থগিত হওয়া পরিচালনা পর্ষদ ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। অভিযোগের বিষয় খতিয়ে দেখতে ইতোমধ্যে দুজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে কনসালটেন্ট হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে বিএসইসি।

এ বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, ডেল্টা লাইফের বিরুদ্ধে অভিযোগ খতিয়ে দেখতে দুইজন কনসালটেন্ট নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কোথায় কি অনিয়ম হয়েছে, তারা খুঁজে দেখবেন।

তিনি আরও বলেন, কমিশন ডকুমেন্ট হাতে পেলে স্থগিত হওয়া পর্ষদকে অফিসিয়ালি ডাকবে। যারা সাধারণ বিনিয়োগকারীদের টাকা লোপাট করেছে তাদের অবশ্যই অর্থ ফেরৎ দিতে হবে। আর প্রতিষ্ঠানটির নতুন বোর্ডে যারা আসবে তাদেরও বিষয়টি দেখতে হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের পাঠানো চিঠি

বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের পরিচালক (উপ-সচিব) মো. শাহ আলম স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে নিয়োগকৃত অডিট ফার্ম মেসার্স একনবীন কর্তৃক বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রভিশনাল ইন্টেরিম রিপোর্ট প্রেরণ করা হয়েছে। এতে প্রাথমিকভাবে উদঘাটিত ৩ হাজার ৬৮৭ কোটি টাকার অর্থ আত্মসাৎ ও দুর্নীতি, রাজস্ব ফাঁকি/বকেয়া এবং অব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কোম্পানিটির আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

প্রতিবেদনে মানিলন্ডারিং বিষয় অপরাধ উল্লেখ করে বিমা নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ।

এদিকে, গ্রাহকের স্বার্থ ক্ষুণ্ন করার কারণে চলতি বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদ চার মাসের জন্য স্থগিত করে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)।

একইসঙ্গে কর্তৃপক্ষের সাবেক সদস্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে  কোম্পানিতে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। এরপর ১০ জুন ডেল্টা লাইফের পরিচালনা পর্ষদ সাসপেন্ডের মেয়াদ বৃদ্ধি করে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত অব্যাহত রাখার আদেশ দেয় আইডিআরএ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here