সিনিয়র রিপোর্টার : এসএস স্টিল কোম্পানির প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ প্লেসমেন্ট-শেয়ার ৬ মাস অবরুদ্ধ বা ফ্রিজ করে রাখা হয়েছে। এসব শেয়ার কোম্পানির কর্তৃপক্ষ বিক্রি, হস্তান্তর বা উপহার দিতে পারবে না। এমনকি শেয়ার জামানত রেখে কোনো ঋণও নেওয়া যাবে না।

কোম্পানিটির বিরুদ্ধে উঠা প্লেসমেন্ট শেয়ার নিয়ে জালিয়াতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এ ব্যবস্থা নিয়েছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা শেয়ারগুলো ৬ মাসের জন্য অবরুদ্ধ করে রাখতে সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডকে (সিডিবিএল) নির্দেশ দিয়েছে। ৫টি বিও হিসাবে থাকা এসব শেয়ার লক-ইন না করার নির্দেশ দেয়া হয়।

বিএসইসির প্রাথমিক অনুসন্ধানে শেয়ার জালিয়াতি এবং তাতে এসএস স্টিল কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্টতার কিছু আলামতও মিলেছে। তাই কমিশন এসএস স্টিল কর্তৃপক্ষের অভিযোগের বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়েছে।

বিএসইসি সূত্র জানায়, সিডিবিএলকে ৫টি বিও হিসাবে থাকা শেয়ারেরর উপর থেকে লক-ইন না তোলার নির্দেশ দিয়েছে। একাউন্টগুলোর একটি হচ্ছে শোরক্যাপ হোল্ডিং লিমিটেড, যার ধারণকৃত শেয়ার সংখ্যা ৯৯ লাখ ৯১ হাজার। এ অ্যাকাউন্টে ‘জালিয়াতি’র শেয়ারগুলো জমা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

অন্য ৪টি অ্যাকাউন্ট হচ্ছে- ইক্যুইটি গ্রোথ লিমিটেড (শেয়ার সংখ্যা ২৯ লাখ ৫০ হাজার), ফুড চেইন এশিয়া (২২ লাখ ৫০ হাজার), অ্যাবসোলিট রিটার্ন লিমিটেড (১৫ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার) এবং সোমা আলম (১২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here