এসএস স্টিলের লুকোচুরি !

0
1395

সিনিয়র রিপোর্টার : বছর না ঘুরতেই আবারও অনুমোদিত মূলধন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এসএস স্টিলের পরিচালনা পর্ষদ। এর আগে চলতি বছরের ২ জানুয়ারি কোম্পানিটি অনুমোদিত মূলধন বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। ঘোষণা অনুযায়ী কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ২৫০ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০০ কোটি করা হয়।

এখন কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ তা আরও বাড়িয়ে ৫০০ কোটি টাকা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সোমবার, ১০ আগস্ট পর্ষদ সভা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

নিয়ম অনুযায়ী, এ ধরনের পর্ষদ সভা করার আগে স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে ঘোষণা দিতে হয়, যা স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রকাশ করে। কিন্তু ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটের প্রকাশিত তথ্যে ১০ আগস্ট এসএস স্টিলের পর্ষদ সভা সংক্রান্ত কোনো ঘোষণা পাওয়া যায়নি।

এর আগে এসএস স্টিলের বিরুদ্ধে প্লেসমেন্ট শেয়ার জালিয়াতির অভিযোগও উঠেছিল। ঘটনায় কোম্পানির প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ প্লেসমেন্ট-শেয়ার ৬ মাস অবরুদ্ধ বা ফ্রিজ করে রাখা হয়। এসব শেয়ার কোম্পানির কর্তৃপক্ষ বিক্রি, হস্তান্তর বা উপহার দিতে পারবে না। এমনকি শেয়ার জামানত রেখে কোনো ঋণও নেয়া যাবে না।

কোম্পানিটির বিরুদ্ধে উঠা প্লেসমেন্ট শেয়ার নিয়ে জালিয়াতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এ ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

এদিকে গত ৪ আগস্ট এসএস স্টিল কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দেয় তারা চট্টগ্রামে অবস্থিত সালেহ স্টিল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৯৯ শতাংশ শেয়ার কিনবে। এ জন্য প্রথম পর্যায়ে এসএস স্টিল ২৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকা বিনিয়োগ করবে। পরবর্তীতে কোম্পানির কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আরও ১৩৪ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে।

এ-সংক্রান্ত ঘোষণায় বলা হয়, এসএস স্টিল নিজস্ব অর্থায়ন এবং পরিচালকদের শেয়ার মানি ডিপোজিট থেকে সালেহ স্টিলে বিনিয়োগ করবে। সালেহ স্টিলে বিনিয়োগের মাধ্যমে কোম্পানিটির বছরে প্রায় ৫০০ কোটি টাকা টার্নওভার বাড়বে। যা কোম্পানির মুনাফা বাড়াতে সাহায্য করবে।

কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষের এই মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশের আগেই প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার দাম বাড়ার প্রবণতা দেখা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here