এনবিআর ১৫০টি ল্যান্ড কাস্টমস স্টেশন বন্ধের কথা ভাবছে

0
72

স্টাফ রিপোর্টার : জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চলে না, কিংবা অবকাঠামো দুর্বল– এমন প্রায় ১৫০টি ল্যান্ড কাস্টমস স্টেশন (এলসি স্টেশন) বন্ধ করে দিবে। বাদবাকী যে ৩০টির মত স্টেশন চলমান রয়েছে, সেগুলোর অবকাঠামোসহ অন্যান্য সুবিধা বাড়িয়ে সেগুলোকে আরো কার্যকর করতে চায় সংস্থাটি।

এ লক্ষ্যে বুধবার সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর সঙ্গে সভা করেছে এনবিআর, যাতে সভাপতিত্ব করেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম। এটি এখনো চূড়ান্ত করেনি এনবিআর। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সহ অন্যান্যদের সঙ্গে আলোচনার পর তা চূড়ান্ত করা হবে।

সভা শেষে এফবিসিসিআিই’র সিনিয়র সহসভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু বলেন, যেসব এলসি স্টেশন কার্যকর নয়, সেগুলো বন্ধ করে দেওয়ার বিষয়ে আমাদের কোন আপত্তি নেই। আমরা এনবিআরকে তা জানিয়েছি।

তবে সভায় যেসব স্টেশন রাখা হবে, সেগুলোর আবকাঠামোসহ  অন্যান্য সুযোগ সুবিধা যাতে নিশ্চিত করা হয়, সে অনুরোধ জানানো হয়েছে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে। সূত্র জানায়, এ বিষয়ে এনবিআরও ইতিবাচক মতামত দিয়েছে।

বাংলাদেশ নিট পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিকেএমইএ) এর নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত ভাইস প্রেসিডেন্ট ফজলে শামীম এহসান বলেন, যেসব এলসি স্টেশন ফাংশনাল নয়, সেগুলো বন্ধ করা নিয়ে আমাদের কোন আপত্তি নেই। তবে বর্তমানে যেসব স্টেশন চালু রয়েছে, সেগুলোর সুবিধা বাড়ানো এবং প্রয়োজন অনুযায়ী যাতে পণ্য ও কাঁচামাল আমদানি করা যায়, তা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছি।

তিনি বলেন, বর্তমানে এলসি স্টেশনের মধ্যে কেবল বেনাপোল বন্দর দিয়ে ইয়ার্ন আমদানি করা যায়। এর ফলে ওই এলসি স্টেশনের উপর অনেক চাপ পড়ে যায়। এর বাইরে ভোমরা, দর্শনা দিয়ে ইয়ার্ন আমদানির সুযোগ দেওয়া ও এসব স্টেশনের অবকাঠামোসহ অন্যান্য সুবিধা বাড়ানো দরকার।

সভায় ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বারস অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) ছাড়াও বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ), বাংলাদেশ নিট পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিকেএমইএ)সহ আমদানি-রপ্তানিকারক অন্যান্য সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here