ঋণ পরিশোধে নিউলাইন ক্লথিংসের গড়িমসি

0
272

সিনিয়র রিপোর্টার : সাউথ ইস্ট ব্যাংকের ঋণ এক মাসের মধ্যে পরিশোধ করবে এমন ঘোষণা দিয়ে শেয়ারবাজার থেকে ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিং (আইপিও) এর মাধ্যমে টাকা নিয়েছিল নিউলাইন ক্লথিংস লিমিটেড। আট মাস পেরিয়ে গেলেও টাকা এখনও পরিশোধ করেনি কোম্পানিটি।

একইসঙ্গে নিউলাইন ক্লথিংসের কর্পোরেট উদ্যোক্তা সিগমা টেকনোলজিস লিমিটেডও আইএফআইসি ব্যাংকের ঋণ খেলাপি। নিউলাইন ক্লথিংসের ১১ দশমিক ৪২ শতাংশ শেয়ার সিগমা টেকনোলজিসের কাছে রয়েছে।

আইপিও : ২০১৮ সালের ২৭ নভেম্বর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) নিউলাইন ক্লথিংসকে পুঁজিবাজারে শেয়ার ছেড়ে ৩০ কোটি টাকা সংগ্রহের অনুমতি দেয়। এর জন্য প্রতিটি শেয়ার ফেসভ্যালু ১০ টাকা মূল্যে ইস্যু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

কোম্পানিটির প্রসপেক্টাসে বলা হয়েছে, আইপিওর টাকা থেকে ১১ কোটি ৭৬ লাখ টাকা দিয়ে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য ৬ মাসের মধ্যে নতুন মেশিনারিজ কেনা হবে। সেখানে আরও বলা হয়, ৭ কোটি ৬৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ১২ মাসের মধ্যে ফ্যাক্টরি বিল্ডিং নির্মাণ এবং এক মাসের মধ্যে সাউথইস্ট ব্যাংকের মেয়াদি ঋণের কিস্তি ৯ কোটি টাকা পরিশোধ করা হবে।

চলতি বছরের ৪ এপ্রিল নিউলাইন ক্লথিংসের ব্যাংক হিসাবে আইপিও টাকা জমা হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন টাকাই তারা খরচ করতে পারেনি।

কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিল বানকো ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড, সন্ধানী লাইফ ফাইন্যান্স লিমিটেড এবং সাউথইস্ট ব্যাংক ক্যাপিটাল সার্ভিসেস লিমিটেড।

ঋণ পরিশোধে গড়িমসি : সাউথইস্ট ব্যাংকের বনানী শাখা থেকে বিভিন্ন সময়ে নেয়া নিউলাইন ক্লথিংস মেয়াদি ঋণের পরিমাণ মোট ৮৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা। এ ঋণের একটি অংশ বা কিস্তি বাবদ ৯ কোটি টাকা আইপিও থেকে চলতি বছরের মে মাসের মধ্যে পরিশোধের ঘোষণা দিয়েছিল নিউলাইন ক্লথিংস।

কিন্তু আট মাস পেরিয়ে গেলেও টাকা কোম্পানিটি পরিশোধ করেনি।

এ বিষয়ে সাউথইস্ট ব্যাংকের বনানী শাখার এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নিউলাইন ক্লথিংস বিভিন্ন সময় এ শাখা থেকে মেয়াদি ঋণ নিয়েছে। কিন্তু কোম্পানিটি ঋণের শিডিউল অনুযায়ী কিস্তি পরিশোধ করছে না। তাই নিউলাইন ক্লথিংসের ঋণ সাব-স্ট্যান্ডার্ড ঋণ হিসেবে রাখা হয়েছে।

নিউলাইন ক্লথিংসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম জাকির চৌধুরী বলেন, ঋণ পরিশোধে সাউথইস্ট ব্যাংকের সঙ্গে কিছু সমস্যা হয়েছে। ব্যাংকটির কাছে ১২ থেকে ১৪ শতাংশ সুদে কয়েক মেয়াদে ঋণ নেয়া হয়েছে। কিন্তু ব্যাংকটি চাচ্ছে সুদ কম এমন ঋণ আগে পরিশোধ করতে। তবে নিউলাইন ক্লথিংস বেশি সুদের ঋণ আগে পরিশোধ করতে চায়।

তিনি আরও বলেন, এ নিয়ে গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের সঙ্গে ঐক্যমত হয়েছে। শিগগিরই ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ করা হবে।

নিউলাইনের কর্পোরেট উদ্যোক্তা ঋণ খেলাপি : কর্পোরেট উদ্যোক্তা সিগমা টেকনোলজিস লিমিটেডের কাছে নিউলাইন ক্লথিংসের ৭৯.৮০ লাখ শেয়ার রয়েছে। সিগমা টেকনোলজিস আইএফআইসি ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখায় ঋণ খেলাপি।

সিগমা টেকনোলজিসের কাছে আইএফআইসি ব্যাংকের সুদ আসলসহ মোট পাওনা ৫৯ লাখ ৫৭ হাজার টাকা।

এ ঋণ আদায়ে চলতি মাসে বন্ধক রাখা সিগমা টেকনোলজিসের খিলগাওয়ে ১৫ ডেসিমাল জমি নিলামে বিক্রির ঘোষণা দেয় আইএফআইসি ব্যাংক।

এ বিষয়ে আইএফআইসি ব্যাংকের এক কর্মকর্তা জানান, খেলাপি ঋণ আদায়ে সিগমা টেকনোলজিসের সম্পদ নিলামে বিক্রির নোটিশ দেয়া হয়েছে। তবে কোম্পানিটির আবেদনের প্রেক্ষিতে নিলামটি আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। ঋণ পরিশোধের জন্য কোম্পানিটিকে আরও কিছু সময় দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে নিউলাইন ক্লথিংসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, কর্পোরেট  উদ্যোক্তা ঋণ খেলাপি হলে তা নিউলাইন ক্লথিংসের জন্য সমস্যা। তাই বোর্ডে সিগমা টেকনোলজিসের প্রতিনিধিকে ব্যাংকের সঙ্গে সমস্যা মিটিয়ে ফেলার জন্য বলা হয়েছে।

সিগমা টেকনোলজিসের নমিনি ডিরেক্টর হিসেবে আলী মোস্তফা নিউলাইন ক্লথিংসের বোর্ডে রয়েছে। এছাড়া সিগমা টেকনোলজিসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আসিফ রহমান নিউলাইন ক্লথিংসের ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। আসিফ রহমানের কাছে নিউলাইন ক্লথিংসের ২৩.৯৪ লাখ শেয়ার রয়েছে।

আর্থিক অবস্থা : ২০১৮-১৯ হিসাব বছরে নিউলাইন ক্লথিংসের নেট মুনাফা হয়েছে ৭ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। এর আগের বছর নেট মুনাফা ছিল ৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। গত হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ৩ শতাংশ নগদ এবং ৭ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে।

এদিকে চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে নিউলাইন ক্লথিংসের পণ্য বিক্রি ১১ শতাংশ বেড়েছে। এ সময় নেট মুনাফা বেড়েছে ৩৮ শতাংশ। এ সময় কোম্পানিটির বিক্রি হয়েছে ৫৫ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। এর আগের বছরের একই সময়ে বিক্রি ছিল ৫০ কোটি ১১ লাখ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here