Ascending এবং Descending Triangles ব্যবহারের মাধ্যমে মুনাফা অর্জনঃ

3
2083

স্বল্প মেয়াদী বিনিয়োগকারীদের কাছে Ascending এবং Descending Triangles জনপ্রিয় কারন স্বল্পমেয়াদী ট্রেডাররা এই ট্রেন্ডটি ব্যবহারের মাধ্যমে সেই পরিমান মুনাফা অর্জন করতে পারেন যার জন্যে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারী দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করে থাকেন। বরং একটি শেয়ারকে দীর্ঘদিন ধরে না রেখে এই triangles ব্যবহার করে আপনি শেয়ার কিনে তা অল্প কিছুদিন ধরে রেখে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীদের সমান মুনাফা লাভ করতে পারেন। 

অনান্য জনপ্রিয় প্যাটার্ণগুলোর মত আপনি যখন চার্টে ascending এবং descending triangles শনাক্ত করতে পারবেন তখন আপনি উর্ধ্বমূখী বা নিন্মগামী ব্রেকাউট চিহ্নিত করে তা হতে মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।এভাবে বাজার যেদিকেই অবস্থান নিক না কেন আপনি ভালরকম মুনাফা অর্জন করতে পারেন।

Untitled

তিন এবং চার সপ্তাহের মধ্যে একটি ascending এবং descending প্যাটার্ণ সৃষ্টি হয়।

লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারনঃ

Ascending এবং descending triangles এর মাধ্যমে আপনার শেয়ার কি দামে বিক্রি করবেন তা নির্দিষ্ট করুন।

  • উর্ধ্বমূখী ব্রে্কাউটের ক্ষেত্র প্যাটার্ণের উচ্চতার সাথে প্রারম্ভিক মূল্য যোগ করতে হবে।
  • নিন্মমূখী ব্রে্কাউটের ক্ষেত্র প্যাটার্ণের উচ্চতা হতে প্রারম্ভিক মূল্য বাদ দিতে হবে।

 

 

Symetrical Triangle ব্যবহারের মাধ্যমে মুনাফা অর্জনঃ

Symetrical Triangle হচ্ছে সবচেয়ে বেশি নির্ভরযোগ্য। এটি ব্যবহারের মাধ্যমে উর্ধ্বমূখী এবং নিন্মমূখী ব্রে্কাউট চিহ্নিত করে আপনি মুনাফা অর্জন করতে পারেন। downtrend এ কিভাবে আপনি সর্বোচ্চ লাভ নিয়ে বেরিয়ে আসতে পারেন সে সম্পর্কে আমরা আলোচনা করবো।

যখনই একটি Symetrical Triangle তৈরিহবে তা ভালভাবে পর্যবেক্ষন করুন। যত তাড়াতাড়ি আপনি ব্রে্কাউট চিহ্নিত করতে পারবেন তত তাড়াতাড়ি আপনি লাভবান হতে পারবেন।

asd

লক্ষনীয় বিষয়সমূহঃ

  • ব্রে্কাউটের পূর্বে sideway movement চলতে থকে।
  • দুটি সমকেন্দ্রিক ট্রেন্ডলাইনের মধ্যে মূল্য ওঠানামা করে।
  • শীর্ষ স্তরে পৌছুতে ব্রে্কাউটের জন্য triangle এর তিন-চতুর্থাংশ বেরিয়ে আসে।  

লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারনঃ

একটি শেয়ারে কখন কিনবেন এটি জানা যেমন গুরুত্বপূর্ণ তেমনি শেয়ারটি কখন বিক্রি করবেন তাও জানা জরুরী। আপনি আপনার নির্ধারিত দামে(target price) শেয়ারটি বিক্রি করবেন যদিও ট্রেন্ডটির আরো উপরের দিকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।   

Symetrical Triangle এর মাধ্যমে আপনার শেয়ার মূল্যের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারনঃ

  • উর্ধ্বমূখী ব্রে্কাউটের ক্ষেত্র প্যাটার্ণের উচ্চতার সাথে প্রবেশমুল্য যোগ করতে হবে।
  • নিন্মমূখী ব্রে্কাউটের ক্ষেত্র প্যাটার্ণের উচ্চতা হতে প্রবেশমুল্য বাদ দিতে হবে।

3 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here