ফারইস্ট নিটিংয়ের কারখানায় অগ্নিকাণ্ড

0
372

স্টাফ রিপোর্টার : ফারইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডায়িং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের কারখানার একটি ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এরই মধ্যে নিয়ন্ত্রণে আসা সে আগুনের ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করছে কোম্পানি। এর বিপরীতে বীমা দাবি করবে তারা।

স্টক এক্সচেঞ্জ মারফত বিনিয়োগকারীসহ সবাইকে কোম্পানি জানিয়েছে, ১২ মে তাদের কারখানা ভবন-২-এর দ্বিতীয় তলায় আগুন লাগে। সেখানে কোম্পানির ফিনিশিং বিভাগের কাজ হয়। আগুনে প্রায় চার হাজার বর্গফুট জায়গা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আসবাব, যন্ত্রপাতি ও কিছু চূড়ান্ত পণ্যের পাশাপাশি উত্পাদন প্রক্রিয়াধীন পণ্যও আগুনে বিনষ্ট হয়েছে বলে জানিয়েছে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ। ভবনের জানালা ও দেয়ালের রঙও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বর্তমানে ক্ষয়ক্ষতির প্রকৃত অংক নিরূপণের চেষ্টা করছে কোম্পানি। বীমা পলিসির আওতায় থাকা এ সম্পদের জন্য দ্রুতই বীমা সুবিধা দাবি করবে কোম্পানি।

২০১৬ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ৫ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে ফারইস্ট নিটিং। সমাপ্ত হিসাব বছরে বস্ত্র খাতের কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা, আগের বছর যা ছিল ২ টাকা ১৪ পয়সা।

২০১৫ হিসাব বছরেও ৫ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দেয় কোম্পানিটি। ২০১৪ হিসাব বছরে এর শেয়ারহোল্ডাররা ৫ শতাংশ নগদ ও ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পান।

এদিকে চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জুলাই-মার্চ) ১ টাকা ৩৫ পয়সা ইপিএস দেখিয়েছে ফারইস্ট নিটিং। আগের বছর একই সময়ে তা ছিল ১ টাকা ৪৯ পয়সা। পুনর্মূল্যায়নজনিত উদ্বৃত্তসহ হিসাব করলে ৩১ মার্চ এর শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ২০ টাকা ৩৩ পয়সা, পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া যা ১৮ টাকা ৬৬ পয়সা।

ডিএসইতে রোববার ফারইস্ট নিটিং শেয়ারের দর ১ দশমিক ৫৪ শতাংশ কমে দাঁড়ায় ২৫ টাকা ৫০ পয়সা। গত এক বছরে এ শেয়ারের সর্বনিম্ন দর ছিল ২০ টাকা ৩০ পয়সা ও সর্বোচ্চ ৩৪ টাকা ২০ পয়সা।

২০১৪ সালে তালিকাভুক্ত ফারইস্ট নিটিংয়ের অনুমোদিত মূলধন ৩০০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ১৬১ কোটি ৪৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রিজার্ভ ১০৯ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। মোট শেয়ারের ৭১ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ এর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ১২ দশমিক শূন্য ৯ ও বাকি ১৬ দশমিক ৮৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here