সিনিয়র রিপোর্টার : প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের জন্য (আইপিও) বাজারে তারল্য সংকট দেখা দিয়েছে। সংকটের সমাধানে নিয়ন্ত্রণ কমিশন ধারাবাহিকভাবে ৮টি কোম্পানির আইপিও অনুমোদন দিতে যাচ্ছে। কমিশনে আরো অনেক কোম্পানির প্রসপেক্টাস জমা হলেও আপাতত এ কোম্পানিগুলোর বিষয়ে বিশেষ নজরদারী করা হচ্ছে।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিশেষ সূত্র এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে। চলতি মাসের শুরুতে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ২০১৬ সালে পুঁজিবাজারে কোম্পানি তালিকাভুক্তি কম হওয়ার কারণ জানতে চাওয়ায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইপিও বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

বিশেষ সূত্র জানায়, আইপিও পাইপলাইনে রয়েছে প্রায় ২২টি কোম্পানি। তার মধ্যে ৮টি কোম্পানি প্রাথমিকভাবে যাচাই-বাছাইয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছে। কঠোর মান নিয়ন্ত্রণ করে কোম্পানিগুলোর আইপিও অনুমোদন দেয়ার বিশেষ সম্ভাবনা। তবে কবে নাগাদ কমিশন অনুমোদন দেবে তা জানা যায়নি।

বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে আইপিওতে আসতে আগ্রহী কোম্পানিগুলোর মধ্যে- এসটিএস হোল্ডিংস (অ্যাপোলো হাসপাতাল) পুঁজিবাজার থেকে তুলবে ৩০ কোটি টাকা। বেঙ্গল পলি অ্যান্ড পেপার স্যাক তুলবে ৫৫ কোটি টাকা, ডেল্টা হসপিটাল ৫০ কোটি টাকা, বসুন্ধরা পেপার মিলস ২০০ কোটি টাকা, পপুলার ফার্মাসিউটিক্যালস ৭০ কোটি টাকা, রানার অটোমোবাইলস ১০০ কোটি টাকা, আমান কটন ফেব্রিক্স ৮০ কোটি টাকা এবং ইনডেক্স এগ্রো ইন্ডাস্টিজ ৪০ কোটি টাকা।

ইতোমধ্যে আমরা নেটওয়ার্কস লিমিটেড ৫৬ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য শেয়ারদর (কাট-অব-প্রাইস) ৩৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামীতে যেকোন দিন কোম্পানিটির টাকা উত্তোলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হবে।

আইপিও তালিকায় ঢাকা রিজেন্সি হোটেল অ্যান্ড রিসোর্ট ৬০ কোটি টাকা উত্তোলনে এগিয়ে থাকলেও ফের পিছিয়ে পড়েছে। কোম্পানির মালিকানা নিয়ে অর্থমন্ত্রণালয়ে অভিযোগ প্রদানের পরে কালো তালিকাভৃক্ত করা হয়েছে।

অভিহিত বা স্থির মূল্য পদ্ধতিতে আইপিওতে আসার তাালিকায় রয়েছে বেশ কয়েকটি কোম্পানি। এরমধ্যে ইফকো গার্মেন্টস অ্যান্ড টেক্সটাইল কোম্পানি পুঁজিবাজার থেকে তুলবে ২০ কোটি টাকা।

আরো তালিকার মধ্যে রয়েছে- ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন ২০ কোটি টাকা, বিবিএস কেবলস ২০ কোটি টাকা, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি ২০ কোটি টাকা, ওইমেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ ১৫ কোটি টাকা, অ্যামিউলেট ফার্মাসিউটিক্যালস ১৫ কোটি টাকা, নাহি অ্যালুমিনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল ১৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।

তালিকার মধ্যে থাকা নূরানী ডাইং অ্যান্ড সোয়েটার লিমিটেড ইতোমধ্যে আইপিও অনুমোদন পেয়েছে। কোম্পানিটি ৪৩ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহ করতে চায়। আইপিও আবেদন জমা শুরু হবে ২ এপ্রিল, চলবে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে রয়েছে- ইবিএল ইনভেস্টমেন্টস, ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল ও সিএপিএম অ্যাডভাইজরি সার্ভিসেস লিমিটেড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here