ঘুরে দাঁড়িয়েছে সূচক

0
1380

স্টাফ রিপোর্টার : মুদ্রানীতির প্রভাবে দুই দিনের বড় দরপতনের পর বুধবার শেয়ারবাজারের সূচক ঘুরে দাঁড়িয়েছে। তবে লেনদেনের কোনো উন্নতি হয়নি, বরং দুই বাজারেই লেনদেন কমেছে।

প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স এদিন ৪৭ পয়েন্ট বেড়েছে। রোববার মুদ্রানীতি ঘোষণার পর দুদিনে ডিএসইর সূচকটি ১৯৮ পয়েন্ট কমেছিল। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচকটি ১৫৩ পয়েন্ট বেড়েছে।

মার্চেন্ট ব্যাংক আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টসের গতকালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দামের ঊর্ধ্বগতির কারণেই মূলত এদিন সূচক ঘুরে দাঁড়িয়েছে। লেনদেনেও ব্যাংক খাত আধিপত্য ধরে রেখেছে।

বাজার-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, মুদ্রানীতির সঙ্গে শেয়ারবাজারের সরাসরি তেমন কোনো সম্পর্ক নেই। মুদ্রানীতি ঘোষণাকালে গভর্নর ফজলে কবির শেয়ারবাজার নিয়ে যে সতর্কবার্তা দিয়েছেন তা নিয়েও উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। কারণ শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ তদারকি বাংলাদেশ ব্যাংকের রুটিন কাজেরই একটি অংশ।

এদিকে ডিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষস্থানে ফিরেছে ইসলামী ব্যাংক। ডিএসইতে কোম্পানিটির প্রায় ৪০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। সোমবার লেনদেনের শীর্ষস্থানটি ছিল বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি বারাকা পাওয়ারের দখলে।

দর বৃদ্ধিতে ঢাকার বাজারে গতকাল শীর্ষস্থানে ছিল বস্ত্র খাতের কোম্পানি ড্রাগন সোয়েটার। এদিন কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম ২ টাকা বা প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৬০ পয়সায়। কোম্পানিটি সম্প্রতি তাদের অর্ধবার্ষিক (গত জুলাই থেকে ডিসেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তাতে ওই প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ২ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল মাত্র ৮৬ পয়সা। সেই হিসাবে আগের বছরের চেয়ে আয় বাড়ায় কোম্পানিটির দামে তার ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

বাজার-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের মতে, পরপর দুদিন বড় ধরনের পতন ঘটায় বিনিয়োগকারীদের একটি অংশ সতর্ক অবস্থায় থাকায় লেনদেনে তার প্রভাব পড়েছে। ঢাকার বাজারে গতকাল লেনদেন হয় ৯৫৭ কোটি টাকার, যা আগের দিনের চেয়ে ১১৮ কোটি টাকা কম। চট্টগ্রামের বাজারে এদিন লেনদেন হয় ৫০ কোটি টাকার, যা আগের দিনের চেয়ে প্রায় ২২ কোটি টাকা কম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here