এবার আইপিওতে আসছে বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ

0
2735

এনএসই : কোম্পানিটির শেয়ারের প্রকৃত মূল্য (ফেস ভেল্যু বা অভিহিত মূল্য) মাত্র দুই রুপি। তবে তা বিক্রি হবে ৮০৫ থেকে ৮০৬ রুপি দরে। দেশের শেয়ারবাজারের বিনিয়োগকারীরা চোখ কপালে তুলবেন। অনেকেই হয়তো এত দরে শেয়ার কিনতে চাইবেন না।

তবে শেয়ারটি যদি হয় বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জের (বিএসই), তবে কেউ কেউ হয়তো নড়েচড়ে বসবেন। কেনার বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করবেন। ২৩ জানুয়ারি, সোমবার সোমবার থেকে বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জই নিজের শেয়ার বিক্রি করতে যাচ্ছে। তাও ২ রুপির শেয়ার ৮০৫ রুপিতে।

বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ কেবল ভারত বর্ষেরই নয়, পুরো এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে পুরনো স্টক এক্সচেঞ্জ। শত বছরের পুরনো স্টক এক্সচেঞ্জটি প্রতিষ্ঠার পর নিজেই আসছে এ এলাকার সময়ের অন্যতম বৃহৎ আইপিও হয়ে।

হয়তো ভাবছেন স্টক এক্সচেঞ্জ নিজেই তো আইপিও প্রক্রিয়ায় মূলধন সংগ্রহ করা কোম্পানির শেয়ারহোল্ডারদের সহজে শেয়ার লেনদেনের সুযোগ করে দিতে তালিকাভুক্ত করে নানা কোম্পানিকে। এই স্টক এক্সচেঞ্জ কী করে আইপিওতে আসে? আসলে স্টক এক্সচেঞ্জ পরিচালনার ধারণায় শতবর্ষের পুরনো রীতির পরিবর্তন হয়েছে।

অলাভজনক প্রতিষ্ঠান থেকে মুনাফাকেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠান হচ্ছে অনেক স্টক এক্সচেঞ্জ। ডিমিউচুয়ালাইজেশন ধারণা থেকে কোম্পানির মালিকানা বিভাগ থেকে ব্যবস্থাপনা বিভাগ পৃথক হচ্ছে। দেশের ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জও গত ২০১৩ সালে এভাবে রূপান্তরিত হয়েছে।

মুনাফাকেন্দ্রিক হওয়ার পর থেকে স্টক এক্সচেঞ্জ নিজেই শেয়ার বিক্রি করছে। উপমহাদেশের শেয়ারবাজারের পরিপ্রেক্ষিতে এখনও এমনটি হয়নি। ভারতের শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সেবি থেকে এ বিষয়ে অনুমতি পাওয়ার পর এ অঞ্চলের মধ্যে প্রথম এমন সুযোগ নিতে যাচ্ছে বিএসই।

আইপিওতে এক কোটি ৫৪ লাখ শেয়ার বিক্রি করে অন্তত সোয়া এক কোটি রুপি সংগ্রহের আশা করছে বিএসই।

আজ সোমবার থেকে শেয়ার বিক্রির কার্যক্রম শুরু হবে। শেয়ার বিক্রি করে প্রায় ১২শ’ কোটি রুপি অর্থ সংগ্রহের আশা করছে স্টক এক্সচেঞ্জটি। এদিকে ভারত সরকারের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জও (এনএসই) আইপিও প্রক্রিয়ায় প্রায় ১০ হাজার কোটি রুপির সংগ্রহের আশা করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here