‘দু’এক মাসের মধ্যে লেনদেন ২ হাজার কোটি ছাড়াবে’

0
3184

মোহাম্মদ তারেকুজ্জামান : বাজারে স্বাস্থ্য ফিরছে; এখন ভালো অবস্থায়। আগামীতে পুঁজিবাজার আরও ভালো হবে। আগামী দু’এক মাসের মধ্যে লেনদেন ২ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। অন্যদিকে বাজার কারেকশনও হবে।

তবে আগামী দুই বছর পর কারেকশন বেশি হওয়ার কিছুটা শঙ্কা রয়েছে। কারেকশন হবে, তবে এ নিয়ে ভয়ের কিছু নেই।

ছোট কারেকশন হলেও নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না। প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডের সিইও ড. মোশাররফ হোসেন শনিবার দুপুরে এসব কথা বলেন।

d. mosarof hossin
ড. মোশাররফ হোসেন

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে স্টক বাংলাদেশ -এর কার্যালয়ে পুঁজিবাজার সংক্রান্ত আলোচনায় মোশাররফ হোসেন বলেন, বাজারে মানি ফ্লো বেড়েছে এবং বাড়ছে। আগামী ২-১ মাসের মধ্যে লেনদেন ২ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। পাশাপাশি সূচক হবে ৬ হাজার। অর্থাৎ সামনের দিনগুলোতে বাজার পরিস্থিতি বর্তমান সময়ের চেয়ে আরও ভালো হবে।

পলিসি পরিবর্তন এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে তিনি বলেন, ১৯৯৬ ও ২০১০ সালে বাজার উন্নয়ন এবং নিয়ন্ত্রণে কমিশনের রুলস-রেগুলেশন তেমন শক্তিশালী ছিল না। তাছাড়া ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাও তেমন সচেতন ছিলেন না। যার কারণে সে সময় বাজারে ধ্বস নামে। অনেকে বলেন, একটি সুবিধাবাদী চক্র এই ধ্বসের সৃষ্টি করেছে।

তবে কারা ধ্বসের সঙ্গে জড়িত এবং দেশের প্রচলিত আইনে তাদের বিচার সম্পর্কে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজী হননি।

দীর্ঘ অভিজ্ঞতার আলোকে তিনি বলেন, বাজারের সেই পরিস্থিতি এখন নেই। বিনিয়োগকারীরা যথেষ্ট সচেতন। বাজার নিয়ন্ত্রণ এবং উন্নয়নে ইতোমধ্যে কমিশনের যথেষ্ট শক্তিশালী রুলস তৈরি হয়েছে। তাছাড়া মিডিয়াও এখন যথেষ্ট সচেতন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ড. মোশাররফ হোসেন বলেন, খারাপ কোন কোম্পানি বাজারে আসার আলোচনা শুরু হলেই মিডিয়া তা প্রচার করছে। মিডিয়া কোম্পানির খারাপ দিকগুলো তুলে ধরছে। এতে করে বিনিয়োগকারীরা খুব সহজেই সচেতন হয়ে যাচ্ছে। মিডিয়ার এই ভূমিকা বাজারের জন্য বড় একটি ইতিবাচক দিক বলে আমি মনে করি।

বাজার উন্নয়নে সরকারের নানামূখী বাস্তব পদক্ষেপ ও ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) বড় ভূমিকা রয়েছে। তারা আরো এগিয়ে এলে আমাদের দেশের তরুণরা পুঁজিবাবাজার বা স্টক মার্কেটকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করবে। এক সময়ে সেই স্বপ্ন বাস্তবতায় ফিরে আসবে বলে মনে করেন মোশারফ হোসেন।