প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ‘নতুন বাজার’ সৃষ্টির উদ্যোগ

1
4630

সিনিয়র রিপোর্টার : পুঁজিবাজারকে নতুন করে সাজানোর কাজ চলছে। দেশের প্রত্যান্ত অঞ্চলে ‘স্টক মার্কেট’ ছড়িয়ে দিতে এবং দেশের মানুষকে পুঁজিবাজার সম্পর্কে উদ্বুদ্ধ করতে বিশেষ এই পরিকল্পনা করা হয়েছে। পরিকল্পনার আওতায় নতুন বাজার সৃষ্টিতে দেশের ৬৪ জেলায় উন্নয়ন মেলা করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে উন্নয়ন মেলায় সরকারি ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো অংশগ্রহণ করবে। মন্ত্রণালয়ের বিশেষ একটি সূত্র মঙ্গলবার এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, ৯ জানুয়ারি থেকে ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত মেলায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), সিকিউরিটিজ হাউজ, বিভিন্ন মার্চেন্ট ব্যাংক অংশগ্রহণ করবে।

দেশের ২৮ জেলায় ব্রোকারেজ হাউজ এবং পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের অনেক শাখা রয়েছে। মেলা প্রথম ধাপে ২৮ জেলায় হবে। পরবর্তী বছর বাকী ৩৬ জেলায় উন্নয়ন মেলা করা হবে। মেলা সম্পন্ন করতে ইতিমধ্যে ২৮ জেলার জেলা প্রশাসকের কাছে বিএসইসির পক্ষ থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। বিএসইসি এবং অর্থ মন্ত্রণালয় এমন তথ্য নিশ্চিত করে।

সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে উন্নয়ন মেলা আয়োজন করছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। মেলা প্রসঙ্গে গত বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে বিশেষ এক বৈঠক করা হয়।

বৈঠকে উন্নয়ন মেলা আয়োজনের কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা এবং সংশ্লিষ্ট সব বিভাগকে মেলায় অংশগ্রহণের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই বিএসইসির পক্ষ থেকে মেলায় অংশগ্রহণের জন্য প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।

মেলা বিষয়ে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সাইফুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে পর্যায়ক্রমে ৬৪ জেলায় উন্নয়ন মেলা করা হবে। মেলায় বিএসইসি, ডিএসই, সিএসই, মার্চেন্ট ব্যাংক ও সিকিউরিটিজ হাউজগুলোর সমন্বিত স্টল থাকবে।