রাহেল আহমেদ শানু : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত নতুন এবং পুরাতন অনেক কোম্পানির লভ্যাংশ প্রদানের পরিমাণ কমেছে। নতুন রুপে তালিকাভুক্ত এবং পুরনো বেশ কয়েকটি কোম্পানি কর্তৃপক্ষ এবারে বিনিয়োগকারীদের হতাশ করে ‍ডুবিয়েছে। তবে লভ্যাংশ কম দেয়া ও না দেয়ার কারণ হিসেবে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা ‘কোম্পানির অব্যবস্থপানাকে’ দায়ী করেছেন।

অন্যদিকে অনেক কোম্পানির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা হলে তারা বলেন, অব্যবস্থাপনা নয়; কোম্পানির আয় কমাই কারণ। তবে ধারাবাহিকভাবে কোম্পানির বোনাস শেয়ার ঘোষণার কারণ কি- এমন প্রশ্নের তারা উত্তর তারা করতে চাননি। এটাকে কোম্পানির পার্সোনাল ইমেজ বলে বলে মনে করেন তারা।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, লভ্যাংশ কমিয়ে আনা নতুন কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস, সেন্ট্রাল ফার্মাসিটিক্যালস, হামিদ ফেব্রিকস, ইফাদ অটোস, খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ও তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং।

এরমধ্যে বাংলাদেশ বিল্ডিং সিমেস্টমস ও সেন্ট্রাল ফার্মাসিটিক্যালস ২০১৩ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে। এ ছাড়া হামিদ ফেব্রিকস, খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ও তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং ২০১৪ সালে এবং ইফাদ অটোস ২০১৫ সালে তালিকাভুক্ত হয়।

কোম্পানিগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি ভালো ব্যবসা করেছে। কোম্পানিগুলোর ইপিএস এবং এনএভি দেখে তা বুঝতে কোন বিনিয়োগকারীর ভুল হবে না।

নতুন কোম্পানিগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস আগের বছরের ২০ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে কমিয়ে চলতি বছর উদ্যোক্তা ব্যতীত অন্যদের জন্য ৫ শতাংশ নগদ ও সবার জন্য ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার ঘোষণা করেছে।

বিনিয়োগকারীদের ‍উদ্দেশ্যে একটি তালিকা প্রকাশ করা হলো- সেন্ট্রাল ফার্মাসিটিক্যালস ১৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার।

হামিদ ফেব্রিকস ২০ শতাংশ (১৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার) থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যংশ ঘোষণা করেছে। ইফাদ অটোস ৩৭ শতাংশ (৩০ শতাংশ বোনাস শেয়ার ও ৭ শতাংশ নগদ) থেকে কমিয়ে ১৭ শতাংশ (১৩ শতাংশ নগদ সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ও ৪ শতাংশ বোনাস) ঘোষণা করেছে।

খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং বিনিয়োগকারীদের হতাশ করে ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ থেকে নামিয়ে এবারে শূন্য।

খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ১৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে ১১ শতাংশ বোনাস শেয়ার ঘোষণা করেছে। তুং হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং ১ বছরের ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ারের বিপরীতে ১৮ মাসে ১০ শতাংশ (১৮ মাসে হয় ১৫ শতাংশ) বোনাস শেয়ার ঘোষণা করেছে।

তবে বহুজাতিক কোম্পানিগুলো তবের ধারা বজায় রেখেছে। দেশিয় কোম্পানিগুলো তাদের রীতি ভেঙে সাধারণ বিনিয়োগকারীদর হতাশ করছে। প্রতাশার সঙ্গে কোম্পানির প্রদানের অনুপাত মিলছে না।

লভ্যাংশ কম ঘোষণা করা পুরনো অনেক কোম্পানি মধ্যে রয়েছে- আফতাব অটোমোবাইলস, এপেক্স স্পিনিং অ্যান্ড নিটিং মিলস, আনলিমা ইয়ার্ন ডাইং, আরামিট সিমেন্ট, বিডিকম অনলাইন, গোল্ডেন সন, জিকিউ বলপেন, এমআই সিমেন্ট, নর্দার্ন জুট ম্যানুফ্যাকচারিং, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ, সায়হাম টেক্সটাইল মিলস, লীগাসি ফুট্যওয়্যার, মেট্রো স্পিনিং, মডার্ন ডাইং অ্যান্ড স্ক্রিন প্রিন্টিং, ঢাকা ডাইং অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং, বাংলাদেশ সার্ভিসেস ও ন্যাশনাল টিউবস।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, আফতাব অটোমোবাইলস ১৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ কমিয়ে ১০ মাসের ব্যবসায় সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১৫ শতাংশ নগদ ঘোষণা করেছে। বিডিকম অনলাইন ১৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১২ শতাংশ, দেশবন্ধু পলিমার ৫ শতাংশ নগদ থেকে শূন্য, এমআই সিমেন্ট ২৫ শতাংশ নগদ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে।

নর্দার্ন জুট ম্যানুফ্যাকচারিং ২০ শতাংশ নগদ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ নগদ, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ ৫০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৪৫ শতাংশ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ ১০ শতাংশ নগদ থেকে হঠাৎ শূন্য ঘোষণা করেছে।

ন্যাশনাল টিউবস ২০ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার, সায়হাম টেক্সটাইল মিলস ১৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ (৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার) ঘোসনা করে।

এদিকে এপেক্স স্পিনিং অ্যান্ড নিটিং মিলস ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ কমিয়ে ১৫ মাসে ২২ শতাংশ (১৫ মাসে আসে ২৫ শতাংশ) ঘোষণা করেছে। আরামিট সিমেন্ট ১০ শতাংশ নগদ থেকে কমিয়ে ১৮ মাসে ১২ শতাংশ (১৮ মাসে হয় ১৫ শতাংশ), গোল্ডেন সন ১২.৫০ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে কমিয়ে ১৮ মাসে সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে।

জিকিউ বলপেন ১০ শতাংশ নগদ থেকে কমিয়ে ১৮ মাসে সাধারণ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ১২.৫০ শতাংশ (১৮ মাসে হয় ১৫ শতাংশ), আনলিমা ইয়ার্ন ডাইং ১০ শতাংশ নগদ কমিয়ে ১০ শতাংশ সাধারণ শেয়ারহোল্ডার ও ৫ শতাংশ পরিচালকদের জন্য ঘোষণা করেছে।

হতাশ করেছে কোম্পানিগুলো : লীগাসি ফুটওয়্যার ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে শূন্য, মেট্রো স্পিনিং ৫ শতাংশ নগদ থেকে শূন্য, মডার্ন ডাইং অ্যান্ড স্ক্রিন প্রিন্টিং ১০ শতাংশ নগদ থেকে ৮ শতাংশ নগদ, ঢাকা ডাইং অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে শূন্য, বাংলাদেশ সার্ভিসেস ১৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে শূন্য, বীচ হ্যাচারি ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার থেকে শূন্য ঘোষণা করেছে।