সিনিয়র রিপোর্টার : বাজার ভালো হবে। তবে রোববার ছিল বাজারের সামান্য কারেকশন। আশঙ্কার কিছু নেই, সব ইন্ডিগেটর বলছে- পজেটিভ। যে কারণে অক্টোবরজুড়েই বাজার ভালো থাকবে। সোমবার স্টক বাংলাদেশকে এমন সম্ভাবনার বাণী শোনালেন দেশের শীর্ষ মার্চেন্ট ব্যাংক এএফসি ক্যাপিটাল লিমিটেডের সিইও মাহবুব মজুমদার।

পুঁজিবাজারের পতন ও উত্থান সম্পর্কে তিনি সম্ভাবনার বিভিন্ন দিক উল্লেখ করে বলেন, দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে রোববার বাজার ডাউন টেন্ডে ছিল। এটা ছিল বাজার কারেকশন, স্বাভাবিক কারেকশন। যা স্বাভাবিকভাবেই হয়।

সম্ভাবনা সম্পর্কে তিনি ব্যাখ্যা করে সোমবার সকালে বলেন, আমরা একটু পেছনের দিকে তাকালে দেখবো, গত দিনগুলোতে বাজার পুরোটাই ঊর্ধমূখী ছিল। গত সপ্তাহ কিংবা তার পরের সপ্তাহ ছিল একই প্রক্রিয়ায়। সেপ্টেম্বর মাসের দিকে তাকালেও দেখব একই চিত্র।

পুরো সেপ্টেম্বর জুড়ে ছিল স্বভাবিক আচরণ। বাজার অনেক ভালো করেছে। অনেক প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীও ইতোমধ্যে এগিয়ে এসেছে। কয়েকদিন আগে এডিবি একটি প্রতিবেদনে প্রকাশ করে জানায়, দেশের রেমিটেন্স অনেক বেড়েছে। একই সঙ্গে পুঁজিবাজার ভালো থাকতে যে সব ইন্ডিগেটর অবশ্যই ভালো থাকা প্রয়োজন, এর সবগুলো পজেটিভ।

সুতরাং, বাজার ভালো হতে বাধ্য।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ৯ মাসের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, সেখানে দেখা গেছে- বিদেশি বিনিয়োগ কয়েক শ’গুণ বেড়েছে। ২০১৫ সালের ৯ মাস এবং ২০১৬ সালের ৯ মাসের তুলনামূলক চিত্র প্রকাশ করলে দেখা যায়, বিদেশি বিনিয়োগ অনেক, যা বিস্ময়কর। বিদেশিরা তখনি বিনিয়োগ করেন, যখন বিনিয়োগ পরিবেশ এবং বিনিয়োগের  নিরাপত্তা পান।

বিস্ময়কর হলেও সত্যি, বিদেশি বিনিয়োগ বেড়েছে প্রায় ৬শ’ গুণ, বলেন মাহবুব মজুমদার।

তিনি বলেন, বিদেশিরা বিনিয়োগ করেন তখনি যখন পুঁজিবাজারের সব ইন্ডিগেটর পজেটিভ হবে। একই সঙ্গে বাজার দীর্ঘ সময়ের জন্য সুবাতাস ছড়ানোর সম্ভাবনা বা পরিবশে সৃষ্টি হয়। বিনিয়োগ নিরাপত্তাকে তারা বেশি গুরত্ব দেন। গত ৯ মাসে বিপুল পরিমাণে বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে।

পরিসংখ্যান উল্লেখ করে মাহবুব মজুমদার বলেন, ২০১৫ সালে বিদেশি বিনিয়োগ ছিল মাত্র ৮১ কোটি টাকা। ২০১৬ সালে ৯ মাসে তা বেড়ে হয়েছে ৫৮৭ কোটি টাকা। যা গত বছরের তুলনায় ৬১৭ শতাংশ বেশি বিনিয়োগ। এটা অনেক বড় পজেটিভ দিক।

সুতরাং আমরা আশা করছি, রোববার মার্কেট কারেকশন হয়েছে। এরপরে অনেক ভালো হবে। এখানে আশঙ্কার কিছু নেই, সব ইন্ডিগেটর বলছে- পজেটিভ। যে কারণে অক্টোবরজুড়েই বাজার ভালো থাকার বেশ সম্ভাবনা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here