সিনিয়র রিপোর্টার : ব্যবসা পরিবর্তনের আভাস দিয়েছে ফার গ্রুপ। যে কারণে গ্রুপের কোম্পানি ফার কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ফ্যামিলিটেক্স লিমিটেড ও আর এন স্পিনিং লিমিটেডের অফিস সরিয়ে গুলশানের নিকেতনে নেয়া হচ্ছে।

গ্রুপের সব প্রতিষ্ঠানের অফিস সরিয়ে ভবনে চলছে সেবামূলক ব্যবসা বেটার লাইফ হাসপাতাল নির্মাণের কাজ। চলতি বছরের জুন মাসের শেষে হাসপাতাল নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে আগস্ট মাসে হাসপাতাল চালুর সম্ভাবনা ছিল। পরবর্তীতে তা বিভিন্ন কারণে আটকা পড়ায় আগামী বছরের শুরুতে ‘বোটার লাইফ হাসপাতাল’ চালুর সম্ভাবনা রয়েছে।

হাসপাতাল চালু সম্পর্কে আর এন স্পিনিং কোম্পানির সিএফও এবং সেক্রেটারি হান্নান মোল্লা স্টক বাংলাদেশকে বলেন, হাসপাতাল তৈরির কাজ চলছে। তবে কবে নাগাদ চালু হবে তার এখনি বলা যাচ্ছেনা।

অফিস স্থানান্তর সম্পর্কে তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় সরিয়ে নেয়া হচ্ছে গুলশানের নিকেতনে। আগামী বছরের শুরুতে নতুন অফিস হতে পারে।

টাকার সংস্থান এবং কি পরিমাণ টাকা ব্যয়ে বেটার লাইফ হাসপাতাল হচ্ছে -এ বিষয়ে কোন উত্তর করেনি হান্নান মোল্লা।

রাজধানীর রামপুরার ডিআইটি রোডের সঙ্গে (চৌধুরীপাড়া) এমএল টাওয়ারে ফ্যামিলিটেক্স এবং আরএন স্পিনিং কোম্পানির তথ্য জানতে গেলে পরিবর্তনের এমন চিত্র চোখে পড়ে। জানতে চাইলে গ্রুপ অব কোম্পানির সংশ্লিষ্ট অনেকে এমন তথ্য নিশ্চিত করেন।

ইতোমধ্যে এমএল টাওয়ার থেকে ফ্যামিলিটেক্স কোম্পানির অফিস গুলশানের নিকেতনে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। ফ্যামিলিটেক্স অফিস থেকে মঙ্গলবার সকালে এমন তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

সরজমিনে দেখা গেছে, অফিস পরিবর্তনের লক্ষে ইতোমধ্যে ফার গ্রুপ অব কোম্পানির ১৮ তলা ভবন থেকে সব অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় সরিয়ে নেয়ার কাজ চলছে। চলছে ভবনে হাসপাতালের জন্য অঙ্গ-সজ্জা তৈরির কাজ।

দেখা যায়, ফার গ্রুপের ১৮ তলা ভবনের ১৫ তলায় রয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি আরএন স্পিনিং কোম্পানির অফিস। এর ওপরের তলায় রয়েছে ফার ক্যামিকেল কোম্পানির কার্যালয়। এর সঙ্গে  ছিল ফ্যামিলিটেক্স কোম্পানির কার্যালয় তা সরিয়ে নেয়া হয়েছে। তিনটি কোম্পানি অদক্ষ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করছে ফার গ্রুপ অব কোম্পানিজ লিমিটেড।

তেমনি অদক্ষ ব্যবস্থপানার মধ্য দিয়ে এমএল টাওয়ারের প্রত্যেক তলায় চলছে সংস্কার কাজ।

ভবনের চারদিক থেকে আসছে শুধুই শব্দ। চলছে টাইলস এবং অন্যান্য নির্মাণ সামগ্রী বসানোর কাজ। নির্মাণ শ্রমিকদের পায়ে-পায়ে ব্যস্ততা এবং ঝুঁকিপূর্ণ কাজের আড়ম্বরতা।

অন্যদিকে, অনেকের ধারণা করছেন- সম্প্রতি ফার গ্রুপের কোম্পানি ফার ক্যামিকেলস রাইট শেয়ারের মাধ্যমে বাজার থেকে টাকা উত্তোলন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যেকোন ‘অসৎ ব্যবস্থাপনার’ মাধ্যমে ফার কোম্পানির টাকায় এ হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে।

উদাহরণ হিসেবে তারা আরএন স্পিনিং কোম্পানির রাইট জালিয়াতির কথা উল্লেখ করেন।

পেছনের খবর : ‘বেটার লাইফ হাসপাতাল’ নির্মাণ করছে ফার গ্রুপ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here