মোহাম্মদ তারেকুজ্জামান : ভালো অবস্থানে রয়েছে দেশের পুঁজিবাজার। গত ছয় মাস ধরে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রণ সংস্থাগুলো দক্ষতার সহিত কাজ করে যাচ্ছে। তারা এভাবে কাজ করতে থাকলে খুব দ্রুতই পুঁজিবাজার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছতে পারবে। জানিয়েছেন জিএসপি ফাইনান্স লিমিটেডের কর্মকর্তা মো: রুহুল আমিন।

বৃহস্পতিবার জিএসপি ফাইনান্স কার্যালয়ে একান্ত সাক্ষাতকারে স্টক বাংলাদেশকে তিনি এসব কথা বলেন।

রুহুল আমিন বলেন, গত ছয় মাস ধরে মার্কেট মোটামুটি স্ট্যাবল অবস্থায় রয়েছে। এই অবস্থাটি ধরে রাখতে পারলে বিনিয়োগকারীদের মনে দীর্ঘমেয়াদে আস্থা ফিরে আসবে। পাশাপাশি তারা দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগও করবে।

তিনি বলেন, সূচক কমে যাওয়া মানেই বাজার খারাপ হওয়া নয়। কারণ বাজারে অনেক সেক্টর রয়েছে। একটি সেক্টর খারাপ হলে সূচক কমতে পারে। কিন্তু  অন্য সেক্টরগুলো থেকে বিনিয়োগকারীরা ঠিকই লাভবান হচ্ছেন।

বর্তমান মার্কেটে বিনিয়োগকারীদের ফান্ডামেন্টাল গ্রোথ দেখে দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগ করা উচিত। শুধু কোম্পানির নাম শুনেই বিনিয়োগ করা উচিত হবে না। নেট অ্যাসেট ভ্যালু, আরনিং সোর্স, কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার পাশাপাশি বিশ্ব অর্থনীতিতে অদূর ভবিষ্যতে কোম্পানিটি ভালভাবে টিকে থাকতে পারবে কিনা তা দেখে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করা উচিত। কোম্পানির শুধু বর্তমান অবস্থা দেখে কখনই বিনিয়োগ করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেন এই কর্মকর্তা।

রুহুল আমিন আরও বলেন, উন্নত দেশগুলোতে মার্কেট মেকাররা পুঁজিবাজারের উন্নয়নে দক্ষতার সহিত কাজ করে থাকে। আমাদের দেশেও মার্কেট মেকার রয়েছে। তারাও কাজ করছে। তবে তাদের দক্ষতা আরও বাড়াতে হবে। আর সরকার পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রনে যাদেরকে দায়িত্ব দিয়েছে তারা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছে কিনা সেটি নিয়মিত পর্যবেক্ষন করা উচিত। পাশাপাশি বিনিয়োগকারী স্বল্পমেয়াদে-দীর্ঘমেয়াদে প্রশিক্ষণ দিতে হবে। যাতে করে তারা দক্ষতার সহিত বিনিয়োগ করতে পারে। আর এই প্রশিক্ষণ পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রণ সংস্থাগুলো বা সরকার দিতে পারে।

পরিশেষে তিনি বলেন, আমি দেশের পুঁজিবাজার নিয়ে খুবই আশাবাদী। কারণ এই সেক্টরের সাথে সম্পর্কিত সবাই কাজ করে যাচ্ছে। খুব শিগগিরই পুঁজিবাজার আরও স্ট্যাবল অবস্থানে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here