শাহজিবাজারের ‘মার্জিন সুবিধা বন্ধ, কতোদিন চলবে’

0
1143

সিনিয়র রিপোর্টার : ‘মার্জিন সুবিধা বন্ধ। ১৮ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে। অপরাধ করেছে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ; ভুগছে সাধারণ কিছু বিনিয়োগকারী। করো কতোদিন চলবে?’ সাধারণ বিনিয়োগকারী মাহফুজ সাহেবের প্রশ্ন।

মাহফুজ বিডিবিএল সিকিউরিটিজের মাধ্যমে শেয়ার লেনদেন করেন।

তিনি বলেন, কোম্পানির অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির কারণে পাবলিক মার্কেট থেকে কোম্পানিটিকে ১৮ মাস আগে স্পট মার্কেটে আনা হয়। এখনো স্পট মার্কেটে চলছে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন। কবে বন্ধ হবে এবং মার্জিন সুবিধা দেয়া হবে- জানা নেই।

বাজার পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থার নির্দেশে কোম্পানিটির লেনদেন স্পট মার্কেটে শুরু হলে ১৮ মাসে দর ৭০ শতাংশের বেশি কমেছে। দর পতনে আয়ও ‍অনেক কমেছে।

২০১৪ সালের জুল‍াই মাসে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন ৩৫-৪০ টাকায় শুরু হয়। এরপরে তা কিছু দিনের ব্যবধানে ওঠে ৩৪০ টাকায়। অল্প সময়ের মধ্যে দর ঊর্ধে ওঠার কারণে নানা আলোচনায় আসে কোম্পানিটি।

ফলে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির কারণে আইনের আওতায় আনে। গত বছরের ২ আগস্ট দর বৃদ্ধির কারণ অনুসন্ধানে নামে ২ সদস্যের কমিটি। তদন্ত শুরু হলেও বাড়তে থাকে শেয়ারের মূল্য। এরপরে ১১ আগস্ট লেনেদন স্থগিত করে বিএসইসি। তদন্তের কারণে ৯৯ কার্যদিবস বন্ধ রাখা হয় কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন।

কারসাজির অভিযোগ কোম্পানির ‍অনেকের বিরুদ্ধে নেয়া হয় ব্যবস্থা। ১৯ নভেম্বর থেকে বন্ধ করা হয় মার্জিন ঋণ এবং শুরু হয় স্পট মার্কেটে লেনদেন। তা এখন পর্যন্ত তুলে নেয়নি নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এরপরে ডিএসইতে ২৫ এপ্রিল মূল্য-আয় অনুপাত ছিল ১৫.০২।

‘মার্জিন ঋণ কবে উঠছে’ জানতে চাইলে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান বলেন, কমিশন যখন মনে করবে তখনি তুলে নেয়া হবে।

অন্যদিকে, শেয়ারে আটকা পড়ে ভুগছে অনেক বিনিয়োগকারী।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here