‘কেন এই আস্থাহীনতা, সেই উত্তর খুঁজে বের করা দরকার’

2
1165

সিনিয়র রিপোর্টার : শেয়ারবাজারের বর্তমান অবস্থার জন্য ‘আস্থাহীনতা’কে প্রধান কারণ বলে মনে করছেন পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ সিদ্দিকী।

তিনি বলেন, আস্থাহীনতার কারণে বাজারে নতুন বিনিয়োগ আসছে না। কেন এ আস্থাহীনতা, সেই প্রশ্নেরই উত্তর খুঁজে বের করা দরকার।

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে শেয়ারবাজারের একাধিক ব্রোকারেজ হাউসের শীর্ষ পর্যায়ের একাধিক কর্মকর্তা ও বিনিয়োগকারীর সঙ্গে কথা হয় সাম্প্রতিক বাজার পরিস্থিতি নিয়ে। এ সময় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন শীর্ষ কর্মকর্তা এবং একজন মধ্যম সারির বিনিয়োগকারী তাঁদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা জানান এই প্রতিবেদককে।

তাঁরা বলেন, গত বছর শেষে শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হওয়া বস্ত্র খাতের একটি কোম্পানির শেয়ার কিনে তাঁরা বিপুল লোকসানের মুখে পড়েছেন। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে ১৫ টাকা অধিমূল্য বা প্রিমিয়াম মিলিয়ে ২৫ টাকায় কোম্পানিটির প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিও অনুমোদন দিয়েছিল বিএসইসি।

লেনদেন শুরুর ছয় মাস না যেতেই কোম্পানিটির শেয়ারের দাম আইপিও মূল্যের বেশ নিচে নেমে গেলে তাতে ওই শেয়ারের বিনিয়োগ করেন তাঁরা। আইপিও দামের চেয়ে ৭ থেকে ৮ টাকা কম দামে শেয়ার কেনার পরও প্রতি শেয়ারে এখন আরও ৫ থেকে ৬ টাকা করে লোকসান।

কারণ, প্রিমিয়ামে আসা ২৫ টাকার আইপিও শেয়ারটির দাম এখন নেমে এসেছে অভিহিত মূল্যের কাছাকাছি। তাই বিনিয়োগের সামর্থ্য থাকলেও এ বাজারে নতুন করে আর বিনিয়োগের সাহস ও ইচ্ছে কোনোটাই হচ্ছে না বলে জানান বাজার–সংশ্লিষ্ট ওই দুজন।

ফারুক আহমেদ সিদ্দিকীর মতে, ক্রমাগত দরপতনে বিনিয়োগকারীরা হতাশ হয়ে পড়েছেন। বাজারে যাঁরা সক্রিয় বিনিয়োগকারী ছিলেন, তাঁদের অনেকে লেনদেনে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছেন।

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here