মোহাম্মদ তারেকুজ্জামান : ঢাকা স্টক একচেঞ্জ(ডিএসই) এর মোবাইল অ্যাপস এর মাধ্যমে বিও একাউন্টধারী বিনিয়োগকারীরা দূর-দূরান্ত থেকে খুব সহজেই শেয়ার লেনদেন করতে পারবেন। তাদেরকে শেয়ার লেনদেনের জন্য ব্রোকারেজ হাউজগুলোতে আর ভীর জমাতে হবে না। ডিএসই সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিএসই’র একাধিক উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ডেইলি স্টক বাংলাদেশকে জানান, শুধু অ্যান্ড্রোয়েড মোবাইলেই ডিএসইর মোবাইল অ্যাপস সংযুক্ত করে বিনিয়োগকারীগণ শেয়ার লেনদেন করতে পারবেন। আর এই অ্যাপস সংযুক্তের কাজটি ব্রোকারেজ হাউজকেই করতে হবে। এজন্য ব্রোকারেজ হাউজের অ্যাপস সংযুক্তির ফরম রয়েছে। সেই ফরমটি পূরণ করতে হবে। ফরমে বিনিয়োগকারীকে তার সংক্ষিপ্ত প্রোফাইল, একাউন্ট নাম্বার, ফোন নাম্বার পূরণ করতে হবে। এরপর ব্রোকারেজ হাউজ বিনিয়োগকারীর অ্যান্ড্রোয়েট সেটে ডিএসইর মোবাইল অ্যাপস সংযুক্ত করবে। ডিএসইর মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে ট্রেডিং ফি ৫শ’ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে বলে তারা জানান।

তারা আরও জানান, ডিএসইর মোবাইল অ্যাপসের তিনটি ভার্সন রয়েছে। ট্রেড ভার্সন, নন ট্রেড ভার্সন ও ডেস্কটপ ভার্সন। ট্রেড ভার্সন ও ডেস্কটপ ভার্সনে শুধু ট্রেড করতে পারবেন বিনিয়োগকারীগণ। আর নন ট্রেড ভার্সনে কোন লেনদেন করা যাবে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নামধারী একটি ব্রোকারেজ হাউজের এক উর্দ্ধতন কর্মকর্তা জানান, শেয়ারবাজারের স্বচ্ছতায় ডিএসইর মোবাইল অ্যাপস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এর মাধ্যমে শেয়ারহোল্ডাররা নিজেদের মতো করে ট্রেড করতে পারবেন। শেয়ারবাজারের যাবতীয় অনুসন্ধান তারা এই অ্যাপসের মাধ্যমে পেয়ে যাবে। এতে করে শেয়ারবাজারে কখন বিনিয়োগ করতে হবে এবং হবে না তা তারা নিজেরাই উপলব্ধি করতে পারবেন। সর্বোপরি এর মাধ্যমে শেয়ারবাজারের স্বচ্ছতার পাশাপাশি বিনিয়োগকারীগণের মনে শেয়ার লেনদেনের ক্ষেত্রে আত্বতৃপ্তি কাজ করবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ৯ মার্চ ডিএসইর মোবাইল অ্যাপস প্রযুক্তি উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

এছাড়াও বিস্তারিত  জানতে এখানে যান। click here.

মোবাইল ট্রেডিং সম্পর্কে আরও খবর জানতে দেখুন

ডিএসইর মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে ট্রেডিং ফি ৫০০ টাকা

ডিএসইর রিয়েল টাইম মোবিলিটির উদ্বোধন হল

মোবাইল ট্রেডিং চালু করতে যাচ্ছে ডিএসই

2 COMMENTS

happy শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here