৮০ কোটি টাকা তুলবে শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট

0
1989

স্টাফ রিপোর্টার : বুক বিল্ডিং পদ্ধতির প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ৮০ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহ করতে চায় আবাসন কোম্পানি শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট লিমিটেড। এ অর্থের ৭৭ শতাংশ ব্যবসা সম্প্রসারণে বিনিয়োগ করার ঘোষণা দিয়েছেন কোম্পানির উদ্যোক্তারা। এর অংশ হিসেবে চলমান বাণিজ্যিক ও আবাসিক নির্মাণ প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নেবেন তারা।

বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে আইপিওর রোড শো আয়োজন করে শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট লিমিটেড। সেখানে যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের সামনে কোম্পানির অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যত্ সম্ভাবনা তুলে ধরেন এর উদ্যোক্তা ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা।

কোম্পানির আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে আগ্রহী বিনিয়োগকারীদের ধারণা দেয়ার জন্য অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেটের ইস্যু ব্যবস্থাপক অ্যালায়েন্স ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপক সুমিত পোদ্দার।

অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্বে বক্তব্য রাখেন আবাসন কোম্পানিটির পর্ষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলামিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলমগীর শামসুল আলামিন ও অ্যালায়েন্স ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলামসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা।

সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে কোম্পানির চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলামিন বলেন, আমার বাবার হাতে গড়া কোম্পানি এটি। দীর্ঘদিন ধরে দেশে সুনামের সঙ্গে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট লিমিটেড। বর্তমানে দ্বিতীয় প্রজন্মে আমরা ব্যবসা পরিচালনার দায়িত্ব পালন করছি। এ কোম্পানির প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার জন্য প্রতিষ্ঠানের সবাই নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

অ্যালায়েন্স ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, দেশের আবাসন খাতে একটি অন্যতম কোম্পানি শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটিকে পুঁজিবাজারে আনার দায়িত্ব পেয়ে আমরা আনন্দিত।

ইস্যুয়ার কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলমগীর শামসুল আলামিন তার বক্তব্যে বলেন, আইপিওর মাধ্যমে আমরা বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে মোট ৮০ কোটি টাকা মূলধন নিতে চাই। নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদনের পর বিনিয়োগকারীরা সাড়া দিলে এ অর্থের ৭৭ শতাংশ বা ৫৭ কোটি ৬৬ লাখ টাকাই ব্যয় করা হবে কোম্পানির ব্যবসা সম্প্রসারণে। আমরা চলমান প্রকল্পগুলোতেই বিনিয়োগকারীর অর্থ ব্যয় করতে চাই, যাতে এর সুফল পাওয়ার জন্য তাদের বেশিদিন অপেক্ষা করতে না হয়।

১৯ কোটি ৯৭ লাখ টাকা দিয়ে কোম্পানির ব্যয়বহুল ব্যাংকঋণ পরিশোধে ব্যয় করা হবে। এতে কোম্পানির সুদ বাবদ ব্যয় কমবে। বাকি টাকায় আইপিও প্রক্রিয়ার ব্যয়নির্বাহ করা হবে।

কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ১০০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ৩৫ কোটি টাকা। ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ছয় মাসে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৫১ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৪৩ টাকা ৯৩ পয়সা।

ক্রেডিট রেটিং ইনফরমেশন অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুসারে, শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট লিমিটেডের ঋণমান দীর্ঘমেয়াদে ‘এ’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি থ্রি’। কোম্পানিটির রেজিস্ট্রার টু দ্য ইস্যুর দায়িত্বে রয়েছে বানকো ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড। নিরীক্ষক এসএফ আহমেদ অ্যান্ড কোং।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here