৮টি কোম্পানির প্রতিবেদন প্রকাশ

0
3015

স্টাফ রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৮ কোম্পানি দ্বিতীয় প্রান্তিক এবং তৃতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানিগুলো হলো- লিন্ডে বাংলাদেশ, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স, বিডি ফাইন্যান্স, ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফাইন্যান্স মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ান এবং ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড।

লিন্ডে বাংলাদেশ লিমিটেড: অর্ধবার্ষিকে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ২৮.২৭ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ৩১.৮৮ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির ইপিএস কমেছে ৩.৬১ টাকা বা ১১.৩২ শতাংশ।

এছাড়া সর্বশেষ তিন মাসে (এপ্রিল’১৭-জুন’১৭) কোম্পানির ইপিএস হয়েছে ১২.১০ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১৫.১৪ টাকা।

এছাড়া অর্ধবার্ষিকে কোম্পানির শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ৩৯.০৪ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ২৫.৬৬ টাকা। শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ২২৭.২০ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ২০৩ টাকা।

ইউনাইটেড ফাইন্যান্স: দ্বিতীয় প্রান্তিকে ইউনাইটেড ফাইন্যান্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৬৮ টাকা। আগের বছর একই সময় ছিল ০.৮৬ টাকা।

এছাড়া আলোচিত সময়ে কোম্পানির  শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৬.১৯ টাকা এবং শেয়ার প্রতি  কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ০.২৮ টাকা (নেগেটিভ)। যা আগের বছরে একই সময়ে এনএভিপিএস ছিল ১৬.৪৭ টাকা এবং এনওসিএফপিএস ছিল ৩.৪১ টাকা (নেগেটিভ)।

রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স: দ্বিতীয় প্রান্তিকে রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৪৯ টাকা। আগের বছর একই সময় ছিল ২.০৪ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানির আয় বেড়েছে ০.৪৫ টাকা বা ১৮.০৭ শতাংশ।

এছাড়া আলোচিত সময়ে কোম্পানির  শেয়ার প্রতি  কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ২.০২ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ৫৭.৮৩ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে এনওসিএফপিএস ছিল ০.২৪ টাকা এবং ৩০ জুন ২০১৬, সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ৪৭.৫১ টাকা।

এদিকে গত তিন মাসে (এপ্রিল-জুন১৭) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৪৬ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ১.২১ টাকা।

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন ১৭) স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৪৬ টাকা, শেয়ার প্রতি সমন্বিত কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ৪.৯০ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৫.৮৩ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৩৮ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ২.২৭ টাকা এবং ৩০ জুন ২০১৬, সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ১৪.৮৯ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.০৮ টাকা।

এছাড়া গত তিন মাসে (এপ্রিল-জুন ১৭) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.২৬ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.১৭ টাকা।

প্রগতি ইন্স্যুরেন্স: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন ১৭) প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.১৯ টাকা, শেয়ার প্রতি কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ১.১৭ টাকা এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ৬৩.২২ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ০.৭৫ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ১.৫২ টাকা এবং ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬, সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ৫৫.০৯ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস বেড়েছে ০.৪৪ টাকা বা ৫৮.৬৭ শতাংশ।

এছাড়া গত তিন মাসে (এপ্রিল-জুন ১৭) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫৯ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.৩০ টাকা।

বিডি ফাইন্যান্স: বিডি ফাইন্যান্স দ্বিতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি’১৭-জুন’১৭) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। অর্ধবার্ষিকে (জানুয়ারি থেকে জুন) কোম্পানির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ০.৫৫ টাকা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ০.৪৫ টাকা। এছাড়া সর্বশেষ তিনমাসের কোম্পানিটি লোকসান গুনেছে। এসময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০.০৮ টাকা। এর আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস ০.২৬ টাকা ছিল।

আলোচিত সময়ে প্রতিষ্ঠানটির কনসলিডেটেড শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৫.০৪ টাকা এবং শেয়ার প্রতি নগদ কার্যকর প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ৫.২৭ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে এনএভি ছিল ১৫.৯৪ টাকা এবং এনওসিএফপিএস ছিল (৬.৪৭) টাকা।

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন ১৭) ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৮৭ টাকা, শেয়ার প্রতি সমন্বিত কার্যকারী নগদ প্রবাহের পরিমাণ হয়েছে (এনওসিএফপিএস) ২৫.০৯ টাকা নেগেটিভ এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) হয়েছে ১৬.৭০ টাকা।

যা আগের বছরে একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ১.০৪ টাকা, এনওসিএফপিএস ছিল ৬.৯২ টাকা নেগেটিভ এবং ৩০ জুন ২০১৬, সমাপ্ত অর্থবছরে এনএভিপিএস ছিল ১৪.৮২ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে ০.১৭ টাকা বা ১৯.৫৪ শতাংশ।

এছাড়া গত তিন মাসে (এপ্রিল-জুন ১৭) এ কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৩৬ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে আয় ছিল ০.৬৪ টাকা।

ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফাইন্যান্স মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ান: তৃতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর ‘১৬-জুন‘১৭)  ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে ০.৬৬ টাকা, ইউনিট প্রতি কার্যকরী নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ০.১৫ টাকা।

আর বাজার মূল্য অনুযায়ী ফান্ডটির ৩০ জুন, ২০১৭ পর্যন্ত ইউনিট প্রতি সম্পদ হয়েছে ১১.৮৮ টাকা যা ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১১.১৭ টাকা এবং ক্রয়মূল্য অনুযায়ী ৩০ জুন, ২০১৭ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ১১.০৯ টাকা যা ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ পর্যন্ত ছিলো ১১.২৮ টাকা।

এদিকে গত তিন মাসে (এপ্রিল-জুন ১৭) এ ফান্ডটির ইউনিট প্রতি আয় হয়েছে ০.২০ টাকা। যা আগের বছরে একই সময়ে ছিলো ০.৩৩ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here