৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত করমুক্ত রাখার প্রস্তাব

0
649

স্টাফ রিপোর্টার : পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত নগদ লভ্যাংশ করমুক্ত রাখার প্রস্তাব দিয়েছে ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ। বর্তমানে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত নগদ লভ্যাংশ করমুক্ত। এর বেশী অর্থের নগদ লভ্যাংশের ওপর ১০ শতাংশ উৎসে কর কাটার নিয়ম রয়েছে।

ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের স্কিমের আওতায় স্টক এক্সচেঞ্জের যে সংস্কার চলছে, তা চলমান রাখতে কর অবকাশ সুবিধা আগামী পাঁচ বছরের জন্য শতভাগ অব্যাহতির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এ প্রস্তাবে আরো বলা হয়, চলতি অর্থবছর স্টক এক্সচেঞ্জের আয়কে শতভাগ কর অব্যাহতি সুবিধা দিয়েছে সরকার। তবে পরের বছরগুলোতে কর অব্যাহতির হার পর্যায়ক্রমে কমবে।

এনবিআরের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, আগামী অর্থবছর ডিএসই ও সিএসই তাদের আয়ের ৮০ শতাংশ ও পরের অর্থবছর ৬০ শতাংশ হারে কর অব্যাহতি সুবিধা পাবে। আর ২০১৭-১৮ অর্থবছরে কর অব্যাহতি মিলবে আয়ের ৪০ শতাংশ এবং তার পরের অর্থবছর কর অব্যাহতির হার হবে ২০ শতাংশ। তবে ডিএসইর প্রস্তাবে আগামী পাঁচ বছর তাদের আয়কে শতভাগ কর অব্যাহতি সুবিধা চাওয়া হয়েছে। বিদ্যমান বিধান অনুযায়ী, অর্থবছর শেষ হওয়ার আগেই ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স কর্তনের ভার সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক বা সদস্য কোম্পানিগুলোকে নিতে হচ্ছে। এ বিধান প্রত্যাহারের সুপারিশ করেছে ডিএসই।

বর্তমানে কোনো শেয়ার, ডিবেঞ্চার, মিউচুয়াল ফান্ড, বন্ড বা অন্য সিকিউরিটিজ হস্তান্তরের ক্ষেত্রে স্টক এক্সচেঞ্জের সদস্যদের দশমিক ০৫ শতাংশ হারে কর কর্তনের বিধান রয়েছে। বর্তমান বাজার পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে নতুন অর্থবছরে এটি কমিয়ে দশমিক ১৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে। চলতি অর্থবছরের আয়কর নীতি অনুযায়ী, পুঁজিবাজারে নিবন্ধিত কোম্পানিগুলোর আয়ের ওপর ২৭ দশমিক ৫ শতাংশ ও নিবন্ধিত নয় এমন কোম্পানির ওপর ৩৫ শতাংশ হারে করপোরেট কর বহাল রয়েছে। নতুন অর্থবছরে নিবন্ধিত কোম্পানিগুলোর ওপর আরোপিত করহার কমিয়ে ২৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব দেওয়া হয়। নিবন্ধিত কোম্পানিগুলোর ওপর থেকে করের বোঝা কমালে আরো বেশি কোম্পানি পুঁজিবাজারে আসতে উৎসাহ পাবে বলে মনে করে ডিএসই।

প্রাক-বাজেট আলোচনা সভায় এনবিআরের চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান মিয়াসহ বিমা সংস্থা, সিএসই, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, এসএমই ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা ও এনবিআরের সংশ্লিষ্ট সদস্যরা।

বাজেট প্রস্তাবনায় ঢাকা স্টক একচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়া বলেন, ২০১৩ সালের ২১ নভেম্বর ডিএসই ডিমিউচুয়ালাইজেশন সম্পন্ন ২০১৪ সালের ১১ ডিসেম্বর থেকে অত্যাধুনিক স্বয়ংক্রিয় ট্রেডিং পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। নতুন ইন্সট্রুমেন্ট চালু, ট্রেডিং বোর্ড গঠন, ডিএসইর কার্যক্রমের সম্পূর্ণ ডিজিটাইজেশনসহ অবকাঠামো সংস্কারের বহুমুখী উদ্যোগ নিয়েছে। এ সব কাজ শেষ করতে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। ডিমিউচুয়ালাইজেশন পরবর্তী সময়ে হ্রাসকৃত হারে যে কর অবকাশ সুবিধা দেওয়া হয়েছে তাতে ২০১৫-১৬ অর্থবছর থেকে স্টক এক্সচেঞ্জগুলোকে কর দিতে হবে। এতে অবকাঠামোগত বিনিয়োগের সক্ষমতা হ্রাস পাবে। তাই আগামী ৫ বছরের প্রতিটির জন্য শতভাগ হারে কর অবকাশ সুবিধা দেওয়ার প্রস্তাব দেন তিনি।

এ ছাড়া কোম্পানি করহার তালিকাবহির্ভূত কোম্পানির জন্য না কমিয়ে বর্তমান হার অব্যাহত রাখা, ২০ শতাংশের বেশী লভ্যাংশ দেওয়া কোম্পানির ক্ষেত্রে ১০ শতাংশ কর রেয়াত বহাল রাখার প্রস্তাব দেন তিনি। একই প্রস্তাব দেন চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) চিফ রেগুলেটরি অফিসার আহমেদ দাউদ।

এ ছাড়া হস্তশিল্প পণ্য রফতানি আয়ের ওপর উৎসে কর প্রত্যাহার, এগ্রো প্রসেসিং শিল্পের জন্য করপোরেট করহার ২০ শতাংশ, কোমল পানীয় ব্যান্ডরোলের ওপর ৩ শতাংশ উৎসে কর প্রত্যাহার, প্লাস্টিক শিল্পের জন্য ১০ বছরের কর অবকাশ সুবিধা এবং করপোরেট করহার ৩২ দশমিক ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দেন এসএমই ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা সাহাব উদ্দিন।

মার্চেন্ট ব্যাংকের করপোরেট করহার এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির ন্যায় ১৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব দেন মার্চেন্ট ব্যাংক এ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন সান্নামাত। ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বন্ড মার্কেটে বিনিয়োগ আয়ের ওপর কর প্রত্যাহার চান লিজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স কোম্পানিজ এ্যাসোসিয়েশনের (বিএলএফসিএ) সভাপতি আসাদ খান।

জীবন বীমার বোনাসের ওপর ৫ শতাংশ গেইন ট্যাক্স প্রত্যাহার, বীমা এজেন্টদের আয়ের ওপর ৫ শতাংশ উৎসে কর এবং ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারের প্রস্তাব দেন বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এ্যাসোসিয়েশনের (বিআইএ) সহ-সভাপতি আহসান উল ইসলাম। এ ছাড়া জীবন বীমা কোম্পানির করপোরেট করহার কমানো, পুঁজিবাজারকে সহায়তা দিতে তালিকাভুক্ত ও তালিকাভুক্তবহির্ভূত কোম্পানির করহারের ব্যবধান ১০ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব দেন।

কনসালট্যান্সি সার্ভিসের ওপর ভ্যাট কমানো ও এর মাধ্যমে আয় করা বৈদেশিক আয়ের ওপর কর অব্যাহতি চান ইনস্টিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট কনসালটেন্ট অব বাংলাদেশের (আইএমসিবি) নির্বাহী পরিচালক জাকির হোসেন।

পুঁজিবাজারের বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে মিউচুয়াল ফান্ড বাজারে আনার ক্ষেত্রে ২ শতাংশ স্ট্যাম্প ডিউটি প্রত্যাহার এবং দীর্ঘমেয়াদী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের গেইন ট্যাক্স অব্যাহতির প্রস্তাব দেন ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here