২০৩১ সালে দেশের মজুদ গ্যাস ফুরিয়ে যাবে

0
487

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের বর্তমান মজুত গ্যাস দিয়ে আগামী ২০৩১ সাল পর্যন্ত চলবে। অর্থাৎ নতুন গ্যাসক্ষেত্র  আবিষ্কার না হলে ১৬ বছরের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে মজুদ। তবে এই সময়ের মধ্যে পর্যায়ক্রমে গ্যাসের সরবরাহও কমে যাবে। রোববার সংসদে আওয়ামীলীগ দলীয় সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের এক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে প্রাথমিকভাবে উত্তোলনযোগ্য গ্যাস ছিল ২৭ দশমিক ১২ টিসিএফ (ট্রিলিয়ন কিউবিক ফুট)। এর মধ্যে ২০১৫ সালের মে পর্যন্ত ১২ দশমিক ৯৬ টিসিএফ গ্যাস উত্তোলন করা হয়েছে। ১৪ দশমিক ১৬ টিসিএফ গ্যাস মজুত আছে। চলতি অর্থবছরের ১১ মাসে ৮১৫ দশমিক ৯৮ বিসিএস (বিলিয়ন কিউবিক ফুট) উত্তোলন করা হয়েছে। গ্যাস উত্তোলনের এই হার অব্যাহত থাকলে মজুত গ্যাস ২০৩১ সাল পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে। একই সঙ্গে গ্যাসের চাপ কমে যাওয়ার কারণে গ্যাস ফিল্ডগুলোর উৎপাদন ক্ষমতা কমে যাবে।

জাতীয় পার্টির সেলিম উদ্দিনের প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে বর্তমানে ভাড়ায় নির্মিত ৩১টি বিদ্যুৎকেন্দ্র রয়েছে। এগুলোর উৎপাদনক্ষমতা ২ হাজার ১৩৭ মেগাওয়াট। ১৪টি রেন্টাল ও কুইক বিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদন ক্ষমতা ৭৪৮ দশমিক ৫০ মেগাওয়াট এবং ১৭টি কুইক রেন্টাল কেন্দ্রের উৎপাদনক্ষমতা এক হাজার ৩৮৮ দশমিক ৫০ মেগাওয়াট।

মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ জানান, ২০২১ সালের মধ্যে সবার জন্য বিদ্যুৎ-সুবিধা নিশ্চিত করা যাবে। বর্তমানে বিদ্যুতের সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৭৪ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here