১ অক্টোবর উৎপাদন শুরু

0
610

সিনিয়র রিপোর্টার : আজিজ পাইপস লিমিটেড দীর্ঘ ১০ মাস পর উৎপাদনে ফিরছে। ইতোমধ্যেই কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ উৎপাদনে ফেরার ঘোষণা দিয়েছে। ১৯৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত এবং দেশের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানটির কাঁচামালের সংকট থাকায় বন্ধ উৎপাদন।

বিশ্বে করোনাকালীন পরিস্থিতিতে বিদেশ থেকে কাঁচামাল আমদানী করতে না পারায় চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি থেকে কারখানার সি-শিফটের উৎপাদন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সম্প্রতি জানায়, আগামী পয়লা অক্টোবর থেকে ফের কোম্পানির উৎপাদন শুরু হবে।

কোম্পানির উৎপাদনে ফেরার ঘোষণায় গত তিন মাসে শেয়ারপ্রতি দরে উধ্বগতি হয়েছে। বুধবার সকালে (২২ সেপ্টেম্বর) ১৫৫ টাকায় শেয়ারপ্রতি লেনদেন হলেও জুলাই মাসের শেষে দর ছিল ৯৭ টাকা।

শেয়ার দর বৃদ্ধির চিত্রটি ডিএসই থেকে বুধবার সকালে নেয়া

উৎপাদনে ফেরা সম্পর্কে জানতে চাইলে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুরুল আবছার বুধবার জানান, আমরা উৎপাদনে ফেরার ঘোষণা দিয়েছি। ১ অক্টোবর থেকে উৎপাদন শুরু করবো। তবে পূর্ণ সক্ষমতায় এখনি ফিরে আসা সম্ভব নয়, কিন্তু আমরা উৎপাদনে ফিরতে চাই।

করোনা মহামারির কারণে সাপ্লায়াররা সময়মতো পিভিসি রেসিন (প্রধান কাঁচামাল) সরবরাহ করতে না পরায় উৎপাদন কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয় বলে জানান তিনি। তবে এবারে কোম্পানির উৎপাদন সক্ষমতার অতি সামান্য শুরু হবে।

বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী পাইপ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আজিজ পাইপস। ১৯৮৫ সালে বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয়। একই বছরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হওয়া প্রতিষ্ঠানটির শুরুতে বছরে উৎপাদন ছিল ১২০০ টন পাইপ। এরপরে ১৯৯৫ সালে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানটি।

১৯৮৫ সালে বছরে ১২০০ টন এবং ১২ বছর পরে ১৯৯৬ সালে উৎপাদন ক্ষমতা কমে দাঁড়ায় ৭শত টনে। এরপরে পর্যায়ক্রমে অনেক কারণে কোম্পানির উৎপাদন কমে।

উন্নতমানের পিভিসি ও ইউপিভিসি পাইপ উৎপাদন করে সারা দেশে বিপণন করে আজিজ পাইপস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here