১৪টি কোম্পানি আইপিও অনুমোদন, উঠছে ৭৭৬ কোটি টাকা

0
1844

ডেস্ক রিপোর্ট : চলতি বছরের গত আট মাসে ১৪টি কোম্পানি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পেয়েছে। যা আগের বছরের চেয়ে বেশি। এ বছর অনুমোদন পাওয়া কোম্পানিগুলো পুঁজিবাজার থেকে প্রায় ৭৭৬ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে এবং এর মধ্যে কয়েকটি কোম্পানি ৪৬৭ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে।

কোম্পানিগুলো হচ্ছে- কুইন সাইথ টেক্সটাইল, অ্যাডভেন্ট ফার্মা, ইন্টাকো রিফুয়েলিং স্টেশন, এস কে ট্রিমস, বসুন্ধরা পেপার, আমান কটন। ইতোমধ্যে কোম্পানিগুলো বাজারে শেয়ার লেনদেন শুরু করেছে।

এছাড়া ভিএফএস থ্রেড, এমএ ডাইং, সিলভা ফার্মা লেনদেনের অপেক্ষায় আছে। ইন্দো বাংলা ফার্মা আইপিও লটারী ড্র ১১ সেপ্টেম্বর। কাট্রালি টেক্সটাইল আইপিও আবেদন চলছে। যা ১৩ সেপ্টেম্বর শেষ হবে। এসএস স্টীল আইপিও অনুমোদন পেয়েছে। কোম্পানিটির চাঁদা গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি।

এদিকে, বুক বিল্ডিং পদ্ধতির মাধ্যমে বাজারে আসার প্রক্রিয়ায় রয়েছে এস্কয়ার নিট, কোম্পানিটির বিডিং শেষ হয়েছে। যার কাট অফ প্রাইস নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৫ টাকা। কোম্পানিটি বাজার থেকে ১৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এছাড়া রানার অটোমোবাইলসের বিডিং আগামী ১০ সেপ্টেম্বর শুরু হবে। কোম্পানিটি বাজার থেকে ১০০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।

আইপিও পর্যালোচনায় দেখা গেছে, কুইন সাউথ টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড পুঁজিবাজার থেকে ১৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ১ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার বাজারে ছেড়েছে।

অ্যাডভেন্ট ফার্মা লিমিটেড আইপিওর মাধ্যমে বাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। কোম্পানিটিকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি শেয়ার ইস্যু করেছে।

ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন লিমিটেড আইপিওর মাধ্যমে বাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি শেয়ার ইস্যু করেছে কোম্পানিটি।

এসকে ট্রিমস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড আইপিওর মাধ্যমে বাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি শেয়ার ইস্যু করেছে। এসব প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বাজারে লেনদেন চলছে।

এদিকে,  ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেড আইপিওর মাধ্যমে বাজার থেকে ২২ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। কোম্পানিটির লেনদেন আগামী ৯ সেপ্টেম্বর শুরু হবে।

এমএল ডাইং লিমিটেডের ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি সাধারণ শেয়ার ছেড়ে আইপিওর মাধ্যমে ২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। কোম্পানিটি লেনদেনের অপেক্ষায় আছে।

সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালস বাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। কোম্পানিটি শেয়ার লেনদেনের অপেক্ষায় আছে।

ইন্দো-বাংলা ফার্মা আইপিওর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ২০ কোটি  টাকা উত্তোলন করেছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে এ অর্থ সংগ্রহ করেছে কোম্পানিটি। উত্তোলিত  টাকায় অবকাঠামো নির্মাণ, মেশিনারিজ ক্রয় করবে। কোম্পানিটির আইপিও লটারির ড্র আগামী ১১ সেপ্টেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।

কাট্টালি টেক্সটাইলের আইপিও আবেদন চলছে। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি ৪০ লাখ সাধারণ শেয়ার ছেড়ে আইপিওর মাধ্যমে ৩৪ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। কোম্পানির আইপিও আবেদন আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

এছাড়া এসএস স্টীল আইপিওর মাধ্যমে ২৫ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন পেয়েছে। ১০ টাকা ফেস ভ্যালুতে ২ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করবে প্রতিষ্ঠানটি। কোম্পানির চাঁদা গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ হয়নি।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতি অনুসরণ করে বসুন্ধরা পেপার পুঁজিবাজারে ২ কোটি ৬০ লাখ ৪১ হাজার ৬৬৭টি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ১৯৯ কোটি ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার ৯৫২ টাকা সংগ্রহ করেছে। কোম্পানির শেয়ার বাজারে লেনদেন হচ্ছে।

বাজার থেকে সংগ্রহ করা অর্থ দিয়ে কারখানার অবকাঠামো উন্নয়ন, যন্ত্রপাতি ক্রয়, স্থাপনা ও ভূমি উন্নয়ন, ঋণ পরিশোধে ব্যয় করবে।

আমান কটন পুঁজিবাজার থেকে ৮০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। পুঁজিবাজার থেকে সংগ্রহ করা অর্থের একটি বড় অংশ দিয়ে কারখানায় আধুনিক মেশিনারি স্থাপন করবে প্রতিষ্ঠানটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here