হাক্কানি পাল্পের বিক্রির বাড়লেও লোকসান

0
368

স্টাফ রিপোর্টার : চট্টগ্রামভিত্তিক হাক্কানি গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান হাক্কানি পাল্প অ্যান্ড পেপার মিলস লিমিটেড প্রিন্টিং পেপার, নিউজপ্রিন্ট এবং ফ্লুটিং মিডিয়া পেপার উৎপাদন ও বাজারজাত করে থাকে। চলতি হিসাব বছরের প্রথম ৯ মাসে কোম্পানিটির পণ্য বিক্রির পরিমাণ আগের বছরের তুলনায় ৪৮ দশমিক ৪৫ শতাংশ বেড়েছে।

কিন্তু পণ্যের দাম কমায় এর সুফল পায়নি কোম্পানিটি। প্রথম তিন প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটির লোকসান আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে ১৪৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, চলতি হিসাব বছরে হাক্কানি পাল্পের বিক্রি আগের তুলনায় বেড়েছে। তবে পণ্যের মূল্য কমে যাওয়ায় এর সুফল পায়নি কোম্পানি। এতে প্রথম তিন প্রান্তিকে লোকসান বেড়েছে।

২০১৬-১৭ হিসাব বছরের তিন প্রান্তিকের (জুলাই-১৬ থেকে মার্চ-১৭)  অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, হিসাব বছরের প্রথম ৯ মাসে কোম্পানিটির বিক্রি আগের তুলনায় ৯ কোটি ৫৫ লাখ টাকা বেড়ে ৩০ কোটি ৪৯ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। ফলে এ সময়ে গ্রস মুনাফা ১৫ লাখ ৬৮ হাজার টাকা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

এদিকে প্রথম ৯ মাসে কোম্পানিটির পরিচালন ব্যয় ৮৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা বা ৩৪ দশমিক ১৯ শতাংশ বেড়ে ৩ কোটি ২৭ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। এতে পরিচালন লোকসান আগের তুলনায় ৬৭ লাখ ৭১ হাজার টাকা বা ১১০ দশমিক ৭৫ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ২৮ লাখ টাকা।

ফলে হিসাব বছরের তিন প্রান্তিকে ১৮ লাখ টাকা কর পরিশোধের পর কোম্পানির নিট লোকসান দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। আগের বছরের একই সময়ে এর নিট লোকসানের পরিমাণ ছিল  ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানিটির নিট লোকসান বেড়েছে ৮১ লাখ ৭ হাজার টাকা। প্রথম তিন প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি লোকসান হয় ৭২ পয়সা, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩০ পয়সা। ৩১ মার্চ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য দাঁড়ায় ২৮ টাকা ৫৪ পয়সা, সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া যা ১১ টাকা ৯৩ পয়সা।

অন্যদিকে, চলতি হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) হাক্কানি পাল্পের বিক্রি ৯ লাখ ৬৫ হাজার টাকা বেড়ে ৩ কোটি ২৩ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। তবে পণ্য উত্পাদনে ব্যয় বাড়ায় এ সময়ে গ্রস মুনাফা কমেছে ৪৬ লাখ টাকা বা ৬৪ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

তাছাড়া এ সময়ে পরিচালন ব্যয় আগের তুলনায় ২৮ লাখ টাকা বা ৩০ দশমিক ২৭ শতাংশ বেড়েছে। এতে পরিচালন লোকসান বেড়েছে ৭৫ লাখ টাকা বা ৩৬৭ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

তৃতীয় প্রান্তিকে কর পরিশোধের পরে কোম্পানির নিট লোকসান দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৪ লাখ টাকা। যেখানে আগের বছরের একই সময়ে লোকসান ছিল ২০ লাখ ৯২ হাজার টাকা। এক বছরের ব্যবধানে লোকসান বেড়েছে ৮৩ লাখ টাকা বা ৩৯৭ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয় ৫৫ পয়সা, আগের বছর একই সময়ে যা ছিল ১১ পয়সা।

এদিকে বাজারে কোম্পানিটির পাওনা অর্থের পরিমাণ হিসাব বছরের ৯ মাসে ৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা বা ২১৭ দশমিক ২৭ শতাংশ বেড়ে ১১ কোটি ৬ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। পাওনা বাড়ায় আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি পরিচালন নগদ প্রবাহও (এনওসিএফএস) কমেছে। ৩১ মার্চ পর্যন্ত ৯ মাসে কোম্পানির এনওসিএফএস হয়েছে মাইনাস ৩ টাকা ২৮ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে তা ছিল মাইনাস ২ টাকা ৮৬ পয়সা।

২০১৬ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে হাক্কানি পাল্প। ওই বছর শেয়ারপ্রতি তাদের লোকসান হয় ৭২ পয়সা। ২০১৫ হিসাব বছরেও ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ পান কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা। তখন শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৪৫ পয়সা।

২০০১ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হাক্কানি পাল্পের অনুমোদিত মূলধন ৫০ কোটি টাকা ও পরিশোধিত মূলধন ১৯ কোটি টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ৩৬ কোটি ১২ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ার সংখ্যা ১ কোটি ৯০ লাখ। এ শেয়ারের ৫৫ দশমিক ৫২ শতাংশ উদ্যোক্তা-পরিচালক, ৮ দশমিক ৩২ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ও বাকি ৩৬ দশমিক ১৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।

ডিএসইতে বৃহস্পতিবার হাক্কানি পাল্প শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ৫২ টাকা ৩০ পয়সা। গত এক বছরে এ শেয়ারের সর্বোচ্চ দর ছিল ৬৪ টাকা ৯০ পয়সা ও সর্বনিম্ন ৪১ টাকা ৭০ পয়সা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here