স্টাফ রিপোর্টার: ১২ই জুলাই, বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সূচকে বেয়ারিশ ক্যান্ডেল দেখা গেছে। বাই প্রেশার দিয়েই লেনদেনের শুরু হয়। তবে কিছুক্ষণ যেতে না যেতেই সেলাররা মার্কেটকে প্রভাবিত করে ফেলে। ১০টা ৪০ মিনিট থেকে ১২টা পর্যন্ত সেলারদের আধিপত্য থাকায় দরপতন ঘটে সূচকে। এরপর ১২টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত আবার কিছুটা বাই প্রেশার লক্ষ্য করা যায়। তবে ১টার পর থেকেই আবার সেল প্রেশার চলতে থাকে এবং মার্কেট ক্লোজ হওয়া পর্যন্ত তা বজায় থাকে। ফলে দিন শেষে সূচক ২০.৩৩ পয়েন্ট বা ০.৩৮% কমে বেয়ারিশ ক্যান্ডেল তৈরি করে।

টেকনিক্যাল এনালাইসিস অনুযায়ী, বর্তমানে সাইড-ওয়েতে চলছে মার্কেট। প্লাস ডিআই লাইন মাইনাস ডিআই লাইনের উপরে অবস্থান করলেও এডিএক্স লাইন নন-ট্রেন্ডিং অবস্থায় আছে।

এদিকে এমএসিডি এবং সিগন্যাল লাইন ক্রমেই জিরো লাইনের কাছাকাছি চলে আসছে। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৮ সালের এপ্রিল পর্যন্ত এমএসিডি ইনডিকেটরে লোয়ার লো অবস্থা বিরাজ করে। কিন্তু এপ্রিলের পর থেকে এখন পর্যন্ত হাইয়ার লো অবস্থা বজায় রেখে চলছে ইনডিকেটরটি।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে ৮৫২ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে যা আগের দিনের চেয়ে প্রায় ২৬২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা কম। বুধবার ডিএসইতে ১১১৫ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। আজ ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩৩৯টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯১টির, কমেছে ২২৩টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টি কোম্পানির শেয়ার দর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here