হঠাৎ ‘জেড’ ক্যাটাগরীতে সিভিও’র লেনদেন, প্লেইড গেম!

0
516

শাহীনুর ইসলাম : পুঁজিবাজারে বহুল সমালোচিত কোম্পানি সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের লেনদেন হঠাৎ জেড ক্যাটাগরীতে শুরু হয়েছে। পূর্ব ঘোষণা ছাডাই বুধবার থেকে প্রতিষ্ঠানটির লেনদেন শুরু হয়। কিন্তু কেনো হঠাৎ এই লেনদেন? দিনভর নানা প্রশ্ন তোলেন এই প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগকারীরা। তার বলছেন,  সিভিও লেনদেন নিয়ে প্লেইড গেম চলছে।

দীর্ঘ ৫২ কার্যদিবস পর রোববার থেকে সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের লেনদেন চালু হয়। এর আগে নানা গুজবে ও কারসাজির অভিযোগে কোম্পানিটির লেনদেন স্থগিত থাকে। অবশেষে ডিএসইর নিয়মিত বৈঠকে প্রতিস্ঠানটিকে অস্বাভাবিক লেনদেনে সহায়তা করায় ৩ প্রতিষ্ঠানকে ২২ লাখ টাকা জরিমানা করে। এরপরে প্রতিষ্ঠানটি লেনদেনের অনুমতি পায় চলতি সপ্তাহের রোববার থেকে।

বাজার পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, সপ্তাহের শুরুতে রোববার কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারে মূল্য বাড়ে ১৭৬ টাকা। দিন শেষে প্রতিষ্ঠানটি দর বৃদ্ধির তালিকায় প্রথম স্থান করে নেয়। দ্বিতীয় কার্যদিবস ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে উভয় পুঁবিাজার বন্ধ থাকে। এরপর দিন মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠনটির শেয়ার দর বাড়ে ৭.০৬ শতাংশ বা ৬২ টাকা। লেনদেনের তালিকাতেও বিশেষ অবস্থান নেয়।

লেনদেনের শুরু থেকেই প্রতিষ্ঠনটি নানা গুজব ও সমালোচনার মধ্যে জড়িয়ে পড়ে। অবশেষে ক্যাটাগরি স্থানান্তর বা গতি পরিপবির্তন করায় গুজব ছেড়ে গেমের রুপ পায়। কেননা, প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার জেট ক্যাটাগরীতে হওয়ার লেনদেনের সময়সীমা হবে ৮ দিন।  প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার ক্রয় করতে হবে নগদ টাকায়। ফলে ইতোমধ্যে যারা প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার কিনেছেন তারা চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

কারণ হিসেবে বিনিয়োগকারীরা যুক্তি উপস্থাপন করেন, সিভিও’র লেনদেন জেড ক্যাটাগরীতে হওয়ায় লেনদেন কমে যাবে। যারা সর্বোচ্চ মূল্যে প্রতি শেয়ারে বিনিয়োগ করেছেন তারা আটকা পড়বেন। কেননা, রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতায় প্রত্যেক বিনিয়োগকারীর দৃষ্টি স্বল্প সময়ে বিনিয়োগ করা অর্থ মুনাফাসহ তুলে নেয়া। অপদিকে, প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার প্রতি দর ক্রমাগতভাবে কমবে। যে কারণে সিভিও’র হঠাৎ গতি পরিবর্তনকে তারা প্লেট গেম হিসেবে মনে করছেন।

বাজার সংশ্লিষ্টরা এরজন্যে দায়ী করেন ডিএসইকে। কেননা- মঙ্গলবার লেনদেন শেষে হঠাৎ ঘোষণা  দেয়া হয় আগামীকাল বুধবার থেকে জেড ক্যাটাগরীতে লেনদেন শুরু হবে। এ ক্ষেত্রে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসিও ব্যর্থ। বিনিয়োগকারীর স্বার্থ ক্ষুন্ন করে এমন সিদ্ধান্ত আত্মঘাতি হিসেবে তারা জানান।

উল্লেখ্য, সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের উৎপাদন গত ৩ বছর ধরে বন্ধ থাকায় শাস্তি হিসেবে জেড ক্যাটাগরীতে এই লেনদেন বুধবার থেকে শুরু হয়।

অস্বাভাবিকহারে শেয়ারের দর বাড়ার কারণ খতিয়ে দেখতে সিভিও পেট্রো কেমিক্যালের শেয়ার লেনদেন গত ২৪ অক্টোবর স্থগিত করে দুই স্টক এক্সচেঞ্জ। লেনদেন স্থগিত থাকা অবস্থায় গত ৩১ অক্টোবর কোম্পানিটি ২০১৩ সালের ৩০ জুন শেষ হওয়া অর্থ বছরের জন্য ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ ঘোষণা করে। লভ্যাংশ ঘোষণার কারণে রোববার এ কোম্পানির শেয়ারে কোনো মূল্যসীমা ছিল না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here