স্বাভাবিক গতিতে পুজিবাজার, শুরু হয়ে গেছে ডিএসইর QUERY নিউজ

3
4641

মেহেদী আরাফাত : টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস অনুযায়ী সোমবার ঢাকা শেয়ার বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়- ডিএসইএক্স ইনডেক্স লেনদেনের শুরু থেকেই বৃদ্ধি পেতে থাকে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে ডিএসই এক্স ইনডেক্স এবং লেনদেন উভয়ই বাড়তে থাকে এবং দিন শেষে ডিএসইএক্স ইনডেক্স বুলিশ ক্যান্ডেলস্টিক তৈরি  করে। আজকের বুলিশ ক্যান্ডেলস্টিক বাজারের ক্রয় চাপ এর ব্যাপারটি নিশ্চিত করে। ডিএসই এক্স ইনডেক্স ৯১.৪৩ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ৪৪০৭.৪২ পয়েন্টে অবস্থান করছে, যা আগের দিনের তুলনায় ২.১১% বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা যায়ে, গত সাত মাসের টানা পতনের পর ডিএসইর ইনডেক্স এবং লেনদেন গত কয়েকদিন ধরে বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। গত সাত মাসের পতনে অনেক শেয়ারের মূল্য তলানিতে এসে ঠেকেছে। মূল্য কমতে থাকলে ডিএসই কখনো জানতে চায় না দাম কেন কমছে। কিন্তু শেয়ারের দাম একটু বাড়তে শুরু করলেই কম্পানির কাছে জানতে চায়, শেয়ারের দাম কেন বাড়ছে। এর বাজে প্রভাব পরে শেয়ারের দামের উপর। পুজিবাযার বিশেষজ্ঞদের মতে স্থিতিশীল বাজারের জন্য বাজারকে স্বাভাবিক গতিতে চলতে দেওয়া উচিত। আজ বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলর কাছে ডিএসই জানতে চায় দাম কেন বাড়ছে। এ ব্যাপারে এপেক্স ইনভেস্টমেন্টর বিনিয়োগকারী রুমেল বলেন, ডিএসইতে যারা দায়িত্বে আছেন উনাদের নিয়মিত পত্রিকা পরা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

বর্তমানে ডিএসই এক্স ইনডেক্স এর পরবর্তী সাপোর্ট ৩৯৭৫ পয়েন্টে এবং রেজিটেন্স ৪৫৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আজ বাজারে এম.এফ.আই এর মান ছিল ৬৫.৭৭ এবং আল্টিমেট অক্সিলেটরের মান ছিল ৫৯.১৩। এম.এফ.আই কিছুটা উদ্ধমুখি অবস্থান করছে এবং আল্টিমেট অক্সিলেটর কিছুটা উদ্ধমুখি অবস্থান করছে।Screenshot_2

ডিএসইতে ২০ কোটি ২৭ লাখ ৮৭ হাজার ২৭১ টি শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়, যার মূল্য ছিল ৭৫৩.৯৮ কোটি টাকা। ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৪৩ কোটি টাকা। ঢাকা শেয়ারবাজারে ৩০৯ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে, যার মধ্যে দাম বেড়েছে ২৫১ টির, কমেছে ৪৫ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৩ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, বাজারে চাহিদা বেশী ছিল ০-২০ কোটি টাকার উপরে পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ৪৪.৯% বেড়েছে। অন্যদিকে বেড়েছে ৫০-১০০ এবং ১০০-৩০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ২৫.৭% এবং ৪.৩৮% বেশী। অন্যদিকে ৩০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মুলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেনের পরিমান গতকালের তুলনায় ১৬.৪৩% কমেছে।

পিই রেশিও ৪০ এর উপরে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৩.৬২% কমেছে। অন্যদিকে পিই রেশিও ০-২০ এর মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৩৭.৭৪% বেড়েছে।

ক্যাটাগরির দিক থেকে এগিয়ে ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ২২.৪৯% বেশী ছিল। কমেছে ‘জেড’ এবং ‘এন’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ৯.৪৯% এবং ২৯.১% কম ছিল।

গত এক মাসে লেনদেন এ শীর্ষে থাকা কম্পানির তালিকা নিচে দেওয়া হোল :  Screenshot_3

3 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here