স্বর্ণের দাম ঊর্ধ্বমুখী হলেও কমেছে রুপার

0
965
ব্লুমবার্গ : আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দর বাড়তির দিকে। পুঁজিবাজার নিম্নমুখী থাকায় নিরাপদ বিনিয়োগ হিসেবে ধাতুটির চাহিদা বেড়েছে। পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক (ফেড) সুদের হার চলতি মাসে বাড়াচ্ছে না, এমন খবরও স্বর্ণের দাম বাড়ায় ভূমিকা রাখছে।

সিঙ্গাপুরে তাত্ক্ষণিক সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে লেনদেন হয় ১ হাজার ১৪২ ডলার ২৮ সেন্টে। গত তিনদিনে স্বর্ণের দাম ১ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়ে এক সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। এর আগে গত মাসে ধাতুটির দাম বেড়ে যায় ৩ দশমিক ৬ শতাংশ, যা জানুয়ারির পর সর্বোচ্চ মাসিক দরবৃদ্ধি।

গণমাধ্যমটি জানায়, চীনের শিল্প খাতে উত্পাদন কমে তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমেছে। আগামী শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের কর্মসংস্থান বিষয়ক মাসিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হতে পারে। আগস্টে দেশটিতে কর্মী নিয়োগ ২ লাখ ১৮ হাজার জন বেড়েছে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা, যার কারণে স্বর্ণের দাম বাড়ছে।

চলতি বছর দেশটিতে বেকারত্বের হার হ্রাস পেয়ে হয়েছে ৫ দশমিক ২ শতাংশ, যা সাত বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম। এজি এশিয়ার বিশ্লেষক বার্নার্ড বলেন, কর্মসংস্থান বাড়লেও মুদ্রাস্ফীতির তথ্য খুব ভালো নয়; তার পরও তা চলতি মাসে সুদের হার বৃদ্ধির জন্য যথেষ্ট নয়। তবে ডিসেম্বরে তা বাড়তে পারে।

দীর্ঘদিন ধরে বিনিয়োগকারীরা সুদের হার বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করছেন। এ কারণে তারা নিরাপদ হিসেবে স্বর্ণে বিনিয়োগ কমিয়ে দিয়েছিলেন। তবে সাম্প্রতিক সময়ে সুদের হার বৃদ্ধির সম্ভাবনা কমে আসায় তারা আবারো ধাতুটিতে বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছেন।

নিউইয়র্ক কোমেক্সে ডিসেম্বরে সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি আউন্স স্বর্ণ গতকাল বিক্রি হয় ১ হাজার ১৪১ ডলার ৬০ সেন্টে। সাংহাই গোল্ড এক্সচেঞ্জে এদিন সামান্য পরিবর্তন হয়ে প্রতি গ্রাম স্বর্ণ ২৩৪ দশমিক ৭৫ ইউয়ানে (১ হাজার ১৪৮ ডলার শূন্য ৬ সেন্ট) বিক্রি হয়।

তবে স্বর্ণের পাশাপাশি প্লাটিনামের দাম বাড়লেও এদিন রুপার দাম কমে যায়। তাৎক্ষণিক সরবরাহের জন্য এদিন প্রতি আউন্স প্লাটিনামের দাম দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে ৫৭৩ ডলার ৪৮ সেন্টে লেনদেন হয়।

এর আগে বুধবার ধাতুটির দাম ৪ দশমিক ৭ শতাংশ কমে গিয়েছিল। এদিন আউন্সপ্রতি রুপার দাম দশমিক ১ শতাংশ কমে ১৪ ডলার ৬০১ সেন্টে বিক্রি হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here