ইমরান হোসেন : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের লভ্যাংশ, নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও অন্যান্য এজেন্ডা অনুমোদন ,জেদ্দায় ব্যাংকটির বৈদেশিক ব্রাঞ্চ চালু করার ঘোষণার মাধ্যমে (৩০ এপ্রিল) রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকার রমনায় অবস্থিত পুলিশ কনভেনশন হলে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডের  ১৮ তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত ।

২০১৬ হিসাব বছরের জন্য ৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ সুপারিশ করেছে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ। রেকর্ড ডেট ছিল ১৩ এপ্রিল। গেল হিসাব বছরে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৪৪ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরে ছিল ২ টাকা ১২ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর এর শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ১৬ টাকা ৬৭ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৫ হিসাব বছরের জন্য ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক।

ব্যাংকটির ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আলি রেজার সঞ্চলনায় এবং চেয়ারম্যান আকরাম উদ্দীন আহম্মাদের সভাপতিত্বে এজিএম অনুষ্ঠিত হয়। আরও উপস্থিত ছিলেন পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ এবং বিপুল সংখ্যক বিনিয়োগকারী।

চেয়ারম্যান আকরাম উদ্দীন আহম্মাদের  তাঁর বক্তব্যে বলেন ,“আমরা বিনিয়োগকারীদেরকে ভাল কিছু দেওয়ার চেষ্টা করি,আপনি শুনবেন না কোন ব্যক্তি স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের কোন বিনিয়োগকারীকে বলছে ,শুনেছো তোমার ব্যাংক অমুক অমুক দুর্ণীতি করেছে”তিনি উল্লেখ করেন আমরা জেদ্দায় আমাদের ব্যাংকের বৈদেশিক ব্রাঞ্চ খুলছি আপনারা উমরা করতে যেয়ে আমাদের ব্রাঞ্চ পাবেন ।

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও ব্যাংকটির বিনিয়োগকারী  কাজী আবদুর রাজ্জাক বলেন,“আমরা ব্যাংকটির কাছে আরও বেশী লভ্যাংশ আশা করি , ১৫% ক্যাশ ও ৫% বোনাস দেয়া উচিৎ ।

২০০৩ সালে শেয়ারবাজারে আসা স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের অনুমোদিত মূলধন ১ হাজার ৫০০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ৭৫৪ কোটি ১০ লাখ ২০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৩৯৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা। মোট শেয়ার সংখ্যা ৭৫ কোটি ৪১ লাখ ১ হাজার ৯০২; যার মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালক ৪৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ৫ দশমিক ৭ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে রয়েছে ৪৬ দশমিক ৭৪ শতাংশ শেয়ার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here