সোমবার শেষ ঘণ্টার ক্রয় চাপে ইনডেক্সে বুলিশ ক্যান্ডেল স্টিক

0
778
স্টাফ রিপোর্টার :  সোমবার, ২৪ জুলাই মার্কেটে কিঞ্চিৎ বাই পেশারে বুলিশ ক্যান্ডেল স্টিক দেখা গেছে। মার্কেট শুরুতে পজিটিভ অবস্থায় শুরু হয়েছিল। তবে ধীরে ধীরে বিক্রয় চাপ বাড়তে থাকে। এক সময় মার্কেট অপেন প্রাইসের খুব কাছাকাছি চলে আসে। তবে শেষ আধ ঘণ্টার বাই পেশারে বাজারে আবারও গতি ফিরে আসে। এই ধারা অব্যাহত রেখে দিন শেষ করেছে মার্কেট। এই অবস্থায় ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২৩ পয়েন্ট উপরে অবস্থান করছে। আগের দিনের তুলনায় খুব কাছাকাছি শেষ হয়েছে মার্কেট।
টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস অনুযায়ী ডিএসইএক্স ইনডেক্সে আজকে শুরু থেকেই অঠা নামার মধ্যে থাকে মার্কেট। তবে একটা সময়ের পর মার্কেটে ক্রেতাদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। পরবর্তীতে এই হালকা আপ ট্রেন্ড ধারাতে শেষ হয় মার্কেট। তাই আজকে বুলিশ ক্যান্ডেল তৈরি করেছে বাজার।
গত কয়েকদিনের ডোজি ক্যান্ডেলের পর এই বুলিশ ক্যান্ডেল বাজারে কিছুটা ভাল সম্ভাবনার কথা বলছে। সাপোর্ট লাইনের উপরে যদি এই বাই পেশার থাকতে পারে তাহলে মার্কেট আবারও উপরে চলে যেতে পারে।

ডিএসই সাধারন সূচক দিন শেষে আগের চেয়ে কিছু পয়েন্ট উপরে আছে। দিন শেষে ইনডেক্স গত দিনের চেয়ে ২২.৫২ পয়েন্ট উপরে অবস্থান করছে। ইন্ডেক্স বিগত দিনের ৫৭৭৫.৫৯ পয়েন্ট থেকে শুরু করে ৫৭৯৮.১১ পয়েন্টে শেষ হয় যা আগের দিনের তুলনায় ০.৩৮৯৯% বেশি।

বাজারে সর্বমোট ৩৩০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে যার মধ্যে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ১৮২ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার এর, হ্রাস পেয়েছে ১০০টির আর অপরিবর্তিত ছিল ৪৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। আজকের মোট লেনদেনের মূল্য দাঁড়িয়েছে ৬৩১.৩ কোটি টাকায় আর মোট লেনদেন হয়েছে ৯৪ হাজার ৬৭০টি শেয়ার।
পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, বেশিরভাগ শেয়ারের লেনদেন কমেছে। দেখা যাচ্ছে ৫০ থেকে ১০০ কোটি টাকার শেয়ার এবং ২০ থেকে ৫০ কোটি টাকার বেশি মূলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেন কমেছে ৭.১৫% এবং ৩.২৫%। তবে ১০০ থেকে ৩০০ মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে ১৯.৫%। আবার ৩০০ কোটি অধিক টাকা পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের ট্রেড বেড়েছে ৬৬.৪৪%।
পিই রেশিওর ভিত্তিতে দেখলে দেখা যায় ট্রেড বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির। দেখা যাচ্ছে ০-২০ পিই রেশিওর শেয়ারের লেনদেন বেড়েছে ৪১.৯২%। সেই সাথে ৪০ এর বেশি পিই রেশিওর শেয়ারের ট্রেড বেড়েছে ২২.২৮% এবং ২০-৪০ পিই রেশিওর শেয়ারের লেনদেন বেড়েছে ২.৬৩%।
ক্যাটাগরির দিক থেকে দেখা যায় লেনদেন বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির। এ এবং বি  ক্যাটাগরি লেনদেন বেড়েছে ২৩.৪ এবং ৪২.৭০ শতাংশ। সেই সাথে জেড ক্যাটাগরির লেনদেন বেড়েছে ১২.৩৩ শতাংশ। সেই সাথে এন ক্যাটাগরির লেনদেন বেড়েছে ২২.৭৩ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here