সোনালী দিনের প্রত্যাশায় স্বাগত -২০১৪

0
467

সুপ্রভাত বাংলাদেশ! স্বাগত ২০১৪, শুভ নববর্ষ!! সোনালি স্বপ্নের হাতছানি নিয়ে উদিত হলো নতুন বছরের নতুন সূর্য। ভরা পৌষে কুয়াশার হিমেল চাদর ছিন্ন করে উদ্ভাসিত হলো সোনালী আলোর সকাল। গ্রেগরিয়ান পঞ্জিকা অনুযায়ী ইংরেজি নববর্ষ শুরু হলো বুধবার।
বিদায়ী  ২০১৩ সালে পাওয়া না পাওয়ার যতো আনন্দ-বেদনা, যতো জঞ্জাল, যতো গ্লানি সব পেছনে ফেলে এবার শুরু হলো নতুন করে এগিয়ে যাওয়ার পালা। মৃত্যুপুরীর ধ্বংসস্তূপেও প্রস্ফুটিত হয় নবজীবনের ফুল। মহাপ্রলয়ের কাছেও হার মানে না বাঙালি। সকল বৈরিতাকে পায়ে দলে গেয়ে যায় জীবনের জয়গান। স্বপ্ন দেখে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সুখী-সমৃদ্ধ অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার। সে স্বপ্নপূরণের প্রত্যাশায় স্বাগতম নববর্ষ।
নতুন বছরে আমাদের অনেক প্রত্যাশা। বঙ্গবন্ধু তনয়া শেখ হাসিনার সরকার আজ মতায়। মাত্র তিনদিন পর আরেকটি নির্বাচন। সে নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও আবারো শেখ হাসিনার প্রধানমন্ত্রী হওয়া প্রায় নিশ্চিত। দিন বদলের সনদের ধারাবাহিকতায় আওয়ামী লীগের এবারের নির্বাচনী ইশতেহার শান্তি গণতন্ত্র উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে ‘এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ’। বাঙালির চোখে তাই এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্নের ঝিলিক। নতুন বছরে দিন বদলের পথে আরো এগিয়ে যাবে দেশ এটাই সবার প্রত্যাশা।
শেখ হাসিনার সরকারের বিগত ৫ বছরে সাম্প্রদায়িকতার গহীন গহ্বর থেকে বেরিয়ে এসে সাংবিধানিকভাবে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার ধারায় প্রত্যাশিত যুগান্তকারী অর্জন সূচিত হয়েছে। নতুন বছরেও এই ধারা অব্যাহত রেখে সামনে এগিয়ে যেতে চাই আমরা।
যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযম, আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ, দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, আব্দুল কাদের মোল্লা, কামারুজ্জামান ও সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিচারের রায় হয়েছে। এরই মধ্যে কাদের মোল্লার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে। নতুন বছরের শুরুতেই আসতে পারে আরেক শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী মতিউর রহমান নিজামীর বিচারের রায়ও। সে প্রত্যাশায় উন্মুখ দেশবাসী। সবারই দাবি, সকল যুদ্ধাপরাধীর বিচার সম্পন্ন হোক। দণ্ড কার্যকর হোক।
দেশের অর্থনীতি এখন অগ্রসরমান। অর্থনীতিবিদরা বলেছেন, এ ধারা আরো গতিশীল হবে, তৈরি পোশাক শিল্পে যে নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত হয়েছে তা সঠিক পথে এগিয়ে গেলে ২০৫০ সালে পশ্চিমের উন্নত দেশগুলোকেও ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ। কট্টরপন্থী ও সুবিধাবাদীদের সকল ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তুলতে ঐক্যবদ্ধ হবে গোটা জাতি নতুন বছরের নতুন সূর্য বয়ে নিয়ে আসুক এই শুভবারতা।
বিদায়ী বছরে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গন ছিল চরম উত্তপ্ত। হরতাল ও জ্বালাও-পোড়াওয়ের ঘটনায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ হয়েছে সাধারণ মানুষের। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ঠেকাতে মরিয়া জামাত-শিবির দেশজুড়ে চালাচ্ছে সীমাহীন তা-ব। একই সঙ্গে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিতে চলছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির টানা কর্মসূচি। এ অবস্থায় দ্রব্যমূল্যের খানিকটা ঊর্ধ্বগতি, পণ্য পরিবহন ও শিল্প উৎপাদন ব্যাহত হওয়াসহ অর্থনৈতিক স্থিবিরতার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বাসে আগুন দিয়ে নিরীহ মানুষকে পুড়িয়ে মারা, রেলের ফিসপ্লেট খুলে ফেলা, যানবাহনে ভাঙচুর এবং রাস্তা কেটে ও গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ জনগণের দুর্ভোগকে আরো বাড়িয়েছে। এই দুর্ভোগ ও দুঃসহ পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ চায় মানুষ। তারা দেখতে চায় রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে বিদ্যমান সংকটের সমাধান।
নতুন বছরে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে শান্তি ও স্থিতিশীলতা ফিরে আসুক, সংসদ হোক সকল কর্মকাণ্ডে কেন্দ্রবিন্দু। দেশবাসী আর সংঘাত দেখতে চায় না; জাতীয় স্বার্থে সবাই যেন ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে পারি নতুন বছরে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।
বিগত বছরে আমাদের দেখতে হয়েছে একের পর এক লাশের মিছিল। রাজনৈতিক সংঘাত, ভবন ধসসহ একাধিক ভয়াবহ দুর্ঘটনায় অসংখ্য প্রাণহানি আমাদের কাঁদিয়েছে বারবার। নতুন বছরে সবার কামনা এমন দুর্ঘটনা আর যেন দেখতে না হয় আমাদের।
নতুন দিনের যে সূর্য আজকের প্রভাতে উজ্জ্বলতায় ভরিয়ে দিলো আমাদের উঠোন কী বার্তা নিয়ে এলো তা আমাদের জন্য? ২০১৪ সাল আমাদের জন্য নতুন নতুন সুসংবাদ নিয়ে আসুক, খুলে যাক সম্ভাবনার নবদিগন্ত এটাই আজকের প্রত্যাশা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here