সূচকের ওঠানামার মধ্য দিয়ে লেনদেন

0
316
indexস্টাফ রিপোর্টার: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের ওঠানামার মধ্যে লেনদেন হয়েছে। সূচক  বাড়ছে আবার কমেছে। এর আগে মঙ্গলবার বাজারে সূচকের সামান্য পতন ঘটে। বৃহস্পতিবার সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে একই ধারাবাহিকতায় লেনদেন শুরু হয়। তবে তা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। পরবর্তীতে লেনদেনের আধা ঘণ্টায় মাথায় বাজার ঘুরে দাঁড়াতে থাকে।
সূচকের উত্থান-পতন সত্ত্বেও আধা ঘণ্টা শেষে উভয় বাজারে বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে। সার্বিক লেনদেনে কিছুটা শ্লথ গতি পরিলক্ষিত হচ্ছে। প্রথম আধা ঘণ্টায় প্রধান বাজার ডিএসইতে প্রায় দুইশ’(১৯০) কোটি টাকার কাছাকাছি লেনদেন হয়েছে।
ডিএসই’র ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, বেলা সাড়ে এগারটায় ডিএসইএক্স সূচক ১০ দশমিক ১৫ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ২৭৩ দশমিক ৯৭ পয়েন্টে  গিয়ে দাঁড়িয়েছে। এর আগে সকাল সোয়া ১১টায় সূচক ১৬ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ২৬৭ দশমিক ২৮ পয়েন্টে গিয়ে পৌছায়।
এ প্রতিবেদন তৈরির সময় পর্যন্ত ডিএসই’তে লেনদেন হয়েছে ২১২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ডিবেঞ্চার। এদের মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৫টির, কমেছে ৫০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। মোট লেনদেন হয়েছে ১৯০ কোটি ৬ লাখ ২৫ হাজার টাকা। শেয়ার, ডিবেঞ্চার ও মিচ্যুয়াল ফান্ড বিক্রি হয়েছে ২ কোটি ৯ লাখ ৯৩ হাজার ৮২০টি।এই সময়ের মধ্যে ডিএসইর লেনদেনের শীর্ষ দশে রয়েছে- তিতাস গ্যাস, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, গ্রামীণফোন, পদ্মা অয়েল, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলস, যমুনা অয়েল, অ্যাক্টিভফাইন কেমিক্যালস, তাল্লু স্পিনিং অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ ও আর.এন স্পিনিং।
এদিকে, দেশের আরেক শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই)ও একইভাবে লেনদেন শুরু হয়। বেলা সাড়ে ১১টায় সিএসসিএক্স সূচক ৩০ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট কমে ৮ হাজার ৪২৩ দশমিক ৪৮ পয়েন্টে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। এর আগে সকাল সোয়া ১১টায় সূচক ৬৮ দশমিক ৮৫ পয়েন্ট কমে ৮ হাজার ৩৮৫ দশমিক ৪১ পয়েন্টে গিয়ে অবস্থান করে।
এ সময় পর্যন্ত সিএসই’তে লেনদেন হয়েছে- মোট ১০৩টি প্রতিষ্ঠানের। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ৩০টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩ কোম্পানির শেয়ারের দাম। টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১৫ কোটি ৩৬ লাখ ৪৬ হাজার ৬৭ টাকা। হাতবদল হওয়া শেয়ার, ডিবেঞ্চার ও মিচ্যুয়াল ফান্ডের পরিমাণ ১৯ লাখ ৫৫ হাজার ৫৭১টি।
এই সময়ের মধ্যে সিএসই’র লেনদেনের শীর্ষ দশ কোম্পানি হলো- গ্রামীণফোন, পদ্মা অয়েল, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, আর.এন স্পিনিং, যমুনা অয়েল, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলস, তিতাস গ্যাস, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক ও গোল্ডেন সন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here