নতুন কোম্পানি হচ্ছে সাইফ পাওয়ারটেক-বিএসসি

0
2548

স্টাফ রিপোর্টার : রাষ্ট্রীয় মালিকানার বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন লিমিটেড (বিএসসি) ও বেসরকারি খাতের সাইফ পাওয়ারটেকের সঙ্গে যৌথ মালিকানার কোম্পানি গঠন হবে, এমন আভাস মিলছে। এ বিষয় সম্প্রতি বিএসসি নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে সম্মতি পেয়েছে।

রাষ্ট্রীয় মালিকানার বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের (বিএসসি) সাথে গত ডিসেম্বর মাসে যৌথ মালিকানায় সমুদ্রগামী বড় জাহাজ (Mother Vessel) কেনার প্রস্তাব দেয় সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড। প্রস্তাবে সমঅংশীদারিত্বের ভিত্তিতে একটি যৌথ কোম্পানি গঠনেরও প্রস্তাব করা হয়। সে প্রস্তাবের কারণে আভাস মিলছে।

মন্ত্রণালয়ের বিশেষ সূত্র জানায়, দুটি কোম্পানির সমঝোতা স্মারক সাক্ষরের জন্য ইতিমধ্যে বিএসসির কাছে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিয়েছে। সেগুলো পর্যালোচনা করে দেখছে কোম্পানিটি। এরপর উভয় কোম্পানির মধ্যে আলোচনা শুরু হবে।

আলোচনা সফল হলে সমঝোতা স্মারকের খসড়া কপি মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়া গেলেই কেবল তারা সমঝোতা স্মারকে সই করতে পারবে।

দুটি বড় জাহাজ প্রস্তাবে থাকছে, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) আমদানি করা অপরিশোধিত জ্বালানি তেল পরিবহণ করা হবে। জাহাজ কেনার জন্য স্থানীয় অথবা বিদেশী ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া হবে। প্রতিটি জাহাজের ধারণ ক্ষমতা হবে ১ লাখ মেট্রিক টন।

সাইফ পাওয়ারটেকের প্রস্তাব পাওয়ার পর বিএসসি তা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেয় তাদের মতামতের জন্য। মন্ত্রণালয় সম্প্রতি প্রাথমিক আলোচনা শুরুর বিষয়ে সম্মতি দিয়েছে।

উল্লেখ্য, বিপিসি প্রতি বছর দুবাইয়ের আবুধাবি ন্যাশনাল অয়েল কোম্পানি (এডিএনওসি) এবং সৌদির অ্যারামকো থেকে ১৩ লাখ টন অপরিশোধিত তেল আমদানি করে থাকে। নিজেদের জাহাজ না থাকায় বিদেশি জাহাজ ভাড়া করে তা দিয়ে তেল আমদানি করতে হয়। সুযোগটিকেই কাজে লাগাতে চায় সাইফ পাওয়ারটেক। পেট্রোবাংলার তেল পরিবহণ করেই একটি জাহাজ লাভজনকভাবে পরিচালিত হতে পারে।

সাইফ পাওয়ারটেকের প্রস্তাবে বলা হয়েছে, যৌথভাবে জাহাজ কেনা হলে বিএসসির মুনাফা অনেক বেড়ে যাবে। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের আরও বেশি লভ্যাংশ দিতে পারবে। অন্যদিকে বিদেশি জাহাজ ভাড়া বাবদ মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা দেশের বাইরে চলে যাবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here