৮টি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

0
225

স্টাফ রিপোর্টার : ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি মঙ্গলবার সরকারি আট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল করেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ ব্যাংকের কনফারেন্স হলে জরুরি সভায় সর্বসম্মতভাবে গতকাল এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভা শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী মুখপাত্র জি এম আবুল কালাম আজাদ প্রেসব্রিফিংয়ে বলেন, ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি ১২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য দুই সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের যারা পরীক্ষার দায়িত্বে ছিলেন, তাদের কাছে একটি ব্যাখ্যা চাওয়া হবে। তদন্ত প্রতিবেদন ও ব্যাখ্যা আসার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কবে এবং কোন পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, তদন্ত কমিটির প্রধান থাকবেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী পরিচালক আহমেদ জামাল। সদস্য সচিব থাকবেন বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন মহাব্যবস্থাপক। সদস্য থাকবেন রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী, জনতা, রাকাব এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের একজন করে প্রতিনিধি।

১২ জানুয়ারি সরকারি আট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে রাজধানীর শাহ আলী মহিলা কলেজে ৫ হাজার ৬০০ পরীক্ষার্থীর জন্য পর্যাপ্ত বসার জায়গা ছিল না। মাত্র ৩০ জনের বসার ব্যবস্থা থাকা কক্ষে গাদাগাদি করে অন্তত থেকে দেড়শ’ পরীক্ষার্থীকে বসতে দেওয়া হয়। লাইব্রেরি কক্ষ, সেমিনার কক্ষ, শিক্ষকদের মিটিং রুমে গাদাগাদি করে বসতে দেওয়া হয়।

শিক্ষকদের অফিসরুম এমনকি প্রিন্সিপালের নিজের চেয়ারে বসতে দেওয়া হয় পরীক্ষার্থীদের। এরপরও শত শত পরীক্ষার্থীকে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়, তারা জায়গা পাননি। এমন অব্যবস্থাপনার কারণে পরীক্ষার্থীরা কলেজটির জানালা দরজা ভাঙচুর করে। পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ও ওএমআর শিট ছিঁড়ে ফেলে। বাধ্য হয়ে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যসচিব মোশাররফ হোসেন খান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই কেন্দ্রের পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করেন।

আগামী ২০ জানুয়ারি শুধু ওই কেন্দ্রের পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন। অন্যদিকে দনিয়া এ কে স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার নির্ধারিত সময়ের ১০ মিনিট পর প্রশ্নপত্র এসে পৌঁছায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here