শীর্ষ ঋণ খেলাপি ৬টি ব্যাংক

0
1901

রাহেল আহমেদ শানু : শীর্ষ ঋণ খেলাপির তালিকায় রয়েছে ৬টি ব্যাংক। দেশে খেলাপি ঋণের মধ্যে শীর্ষ ১০ ব্যাংকের কাছে ৫২ হাজার কোটি টাকা। যা মোট খেলাপি ঋণের ৬৫ ভাগ। এরমধ্যে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত রয়েছে ৬টি ব্যাংক।

ব্যাংকগুলো হলো- রূপালী ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক ও সিটি ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে সম্প্রতি এ তথ্য উঠে এসেছে।

ব্যাংকাররা জানিয়েছেন, বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ব্যবসায়ীরা ঋণের টাকা সৎব্যবহার করেননি। আবার কেউ কেউ লোকসানের সম্মুখীন হয়েছেন। এ কারণে তারা ঋণ পরিশোধ করতে পারছেন না। খেলাপি ঋণ কমানোর জন্য ঋণ নবায়ন করার জন্য ব্যবসায়ীদেরকে চাপ দিচ্ছেন। কিন্তু ঋণ নবায়ন করার জন্য যে ন্যূনতম এককালীন অর্থ পরিশোধ করতে হয় (ডাউন পেমেন্ট) তা তারা করতে পারছেন না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, খেলাপি ঋণের ক্ষেত্রে শীর্ষ ১০ ব্যাংকের মধ্যে প্রথম ৫টিই সরকারি। সরকারি ব্যাংকের মধ্যে সোনালী ব্যাংকের খেলাপি ঋণ সবচেয়ে বেশি। ব্যাংকটির সেপ্টেম্বর শেষে খেলাপি ঋণ ছিল প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকা, যা ব্যাংকিং খাতের খেলাপি ঋণের ১৫ ভাগ। এর পরেই রয়েছে জনতা ব্যাংক।

ব্যাংকটির আলোচ্য সময়ে খেলাপি ঋণ ছিল ৮ হাজার ১৮৭ কোটি টাকা, যা মোট খেলাপির ১০ দশমিক ২২ ভাগ। ৯ দশমিক ৬২ ভাগ নিয়ে বেসিক ব্যাংক রয়েছে তৃতীয় অবস্থানে। ব্যাংকটির সেপ্টেম্বর শেষে খেলাপি ঋণ আগের ত্রৈমাসিকের ৭ হাজার ৩৯০ কোটি টাকা থেকে বেড়ে হয় ৭ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা।

অগ্রণী ব্যাংকের ৬ দশমিক ৭৯ ভাগ এবং রূপালী ব্যাংকের ৫ দশমিক ৫৫ ভাগ। বেসরকারি ৫ ব্যাংকের মধ্যে ন্যাশনাল ব্যাংকের মোট খেলাপি ঋণ ৩ হাজার ২৭ কোটি টাকা, যা মোট খেলাপি ঋণের ৩ দশমিক ৭৮ ভাগ। এর পরেই রয়েছে পূবালী ব্যাংক ১ হাজার ৭৬৩ কোটি টাকা।

যা মোট খেলাপি ঋণের ২ দশমিক ২০ শতাংশ এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ১ হাজার ৬২৭ কোটি টাকা, যা মোট খেলাপি ঋণের ২ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। প্রাইম ব্যাংকের ১ হাজার সাড়ে ৬ শ’কোটি টাকা এবং সিটি ব্যাংকের ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা।

এ দিকে ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণ কেবল বেড়েই যাচ্ছে না, কিছু কিছু ব্যাংক খেলাপি ঋণ অবলোপনও করছে সমান তালে। ঋণ অবলোপনের দিক থেকে সরকারি ব্যাংকের চেয়ে পিছিয়ে নেই বেসরকারি ব্যাংকও।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে সমগ্র ব্যাংকিং খাতে পুঞ্জীভূত খেলাপি ঋণ ছিল প্রায় ৩৬ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে শীর্ষ ১০ ব্যাংকের ঘাড়েই রয়েছে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা, যা মোট অবলোপনকৃত খেলাপি ঋণের ৬৯ শতাংশ। খেলাপি ঋণ অবলোপন করা শীর্ষ ১০ ব্যাংকের মধ্যে ৪টি সরকারি ব্যাংক এবং বাকি ৬টি বেসরকারি।

বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঋণ অবলোপন করেছে ন্যাশনাল ব্যাংক। সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংকটি ঋণ অবলোপন করেছে প্রায় ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা, যা মোট অবলোপনকৃত খেলাপি ঋণের প্রায় ৫ ভাগ।

এর পরেই রয়েছে প্রাইম ব্যাংকের প্রায় ১ হাজার সাড়ে ৬ শ’ কোটি টাকা, যা মোট অবলোপনকৃত খেলাপি ঋণের ৪ দশমিক ৫৭ শতাংশ। দি সিটি ব্যাংকের প্রায় ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা, যা মোট অবলোপনকৃত খেলাপি ঋণের সাড়ে ৪ ভাগ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here