মোমেন্টাম (Momentum)

0
873

মোমেন্টাম ইন্ডিকেটরটি একটি নির্দিষ্ট সময়ে শেয়ারের মূল্য কি পরিমাণে পরিবর্তন হয় তা পরিমাপ করে।  মূলত দু’ভাবে মোমেন্টাম ইন্ডিকেটর ব্যবহৃত হয়ঃ মোমেন্টাম ইন্ডিকেটরটিকে MACD–র মত ট্রেন্ডকে অনুসরন করে। যখন মোমেন্টাম  ইন্ডিকেটরটি নিচে অবস্থান করে এবং উর্ধ্বমূখী নির্দেশ করে তখন ক্রয় (buy)করুন। বিক্রয় (sell) করবেন যখন মোমেন্টাম ইন্ডিকেটরটি শীর্ষে অবস্থান করে এবং নিচে নেমে আসবে তা নির্দেশ করে। আপনি হয়তো এই ইন্ডিকেটরের একটি স্বল্পমেয়াদী moving average এর মাধ্যমে এর শীর্ষ ও নিন্ম অবস্থান নির্দিষ্ট করতে চান। যদি মোমেন্টাম ইন্ডিকেটর শীর্ষ অথবা নিন্ম মানে পৌঁছায় তবে যে ট্রেন্ডটি চলছিল সে ট্রেন্ডটি চলতে থাকবে তা আপনাকে ধরে নিতে হবে। উদাহরণস্বরুপ, যদি মোমেন্টাম ইন্ডিকেটর শীর্ষের চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে এবং নিচের দিকে নেমে আসে তবে আপনি হয়তো মনে করতে পারেন যে দাম বাড়তে পারে। তাছাড়া, ট্রেডের পর মূল্যের পরিবর্তনই ইন্ডিকেটরের সিগন্যাল নিশ্চিত করে (যদি দাম বেড়ে শীর্ষে পৌঁছায় এবং নিন্মগতি হয় তবে বিক্রয়ের পূর্বে অপেক্ষা করুন যতক্ষন না দাম কমে নিচে নেমে আসতে শুরু করে)।

আপনি মোমেন্টাম ইন্ডিকেটরটিকে প্রধান (Leading) ইন্ডিকেটর হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এই পদ্ধতিতে বাজার শীর্ষে অবস্থান করছে তা শনাক্ত করা হয় মূল্যের দ্রুত বৃদ্ধি(যখন সবাই মনে করে মূল্য আরো উপরে যাবে) এবং বাজার নিন্মসীমায় নেমে আসে তখন তা শনাক্ত করা হয় মূল্যের দ্রুত পতনের মাধ্যমে (যখন সবাই বেরিয়ে আসতে চায়)।

বাজার যখন শীর্ষে অবস্থান করে তখন মোমেন্টাম ইন্ডিকেটর তীক্ষ্ণভাবে উপরের দিকে উঠে যায় এবং পরবর্তীতে নেমে আসে এবং চলতিমূল্যের উর্ধ্বগতি অথবা sideway এর সাথে ডাইভারজেন্স তৈরিহয়। একইভাবে,বাজার যখন নিন্মস্তরে অবস্থান করে তখন মোমেন্টাম তীক্ষ্ণভাবে নিচের দিকে নেমে আসে এবং মূল্যের পূর্বে মোমেন্টাম ইন্ডিকেটরটি উপরে উঠতে থাকে ।এই দুটি অবস্থায় পরিপ্রেক্ষিতে ইন্ডিকেটর এবং মূল্যের মধ্য divergence এর সৃষ্টি হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here